মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ

বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক ভর্তি পরিক্ষার সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারিত হয়েছে। বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় সমূহের উপাচার্যদের সংগঠন অটই’র স্ট্যান্ডিং কমিটির ২৪৪তম সভায় এই সম্ভাব্য তারিখগুলো নির্ধারণ করা হয়।

বুধবার সন্ধ্যা ৬ টায় শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কনফারেন্স কক্ষে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মো. রুহুল আমিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সভায় গুরুত্বের সাথে আলোচিত হয় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো শিক্ষকদের বেতন স্কেল ও মর্যাদা নিয়ে। সভায় প্রস্তাবিত ৮ম জাতীয় বেতনস্কেলে শিক্ষকদের মর্যাদা অবদমন করায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। তারা নতুন বেতন কাঠামোয় শিক্ষকদের বেতন কাঠামো যাতে সমুন্নত রেখে সমাজে তাঁদের সম্মান ও মর্যাদার সাথে বসবাসের সুযোগ করে দিতে তারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সদয় হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সংগঠনটির পক্ষ থেকে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের যৌক্তিক দাবির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করা হয়।

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সম্ভাব্য ভর্তি পরীক্ষার তারিখ:

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো-
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়- ৯, ১০, ১৬, ১৭, ৩০ অক্টোবর ও ৬ নভেম্বর
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরে দিন
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, সাভার, ঢাকা- ২৫ অক্টোবর থেকে ৫ নভেম্বর
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়- ৯ থেকে ১২ নভেম্বর
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়- ১ থেকে ৯ নভেম্বর
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া- ১৫ থেকে ১৯ নভেম্বর
জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, ত্রিশাল, ময়মনসিংহ- ৯-১২ নভেম্বর
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়- ২৭ ও ২৮ নভেম্বর
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর- ৪, ৫ ও ৬ ডিসেম্বর
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়- ১১ ও ১২ ডিসেম্বর
বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস- ২৩, ২৪, ৩০ ও ৩১ অক্টোবর
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়- ৪ ও ৫ ডিসেম্বর

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়- ১ অক্টোবর

প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়গুলো-
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)- ১০ বা ১৭ অক্টোবর
চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়- ৩১ অক্টোবর
রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়- ১৪ নভেম্বর
খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়- ৬ নভেম্বর
বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়, তেজগাঁও, ঢাকা- ২০ অথবা ২৭ নভেম্বর

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো-
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর- ১৪ নভেম্বর
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ- ৫ ডিসেম্বর
শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা- ১৮ ডিসেম্বর
সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়- ২৮ নভেম্বর
চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়- ৭ নভেম্বর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো-
পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়- ১৩ নভেম্বর
হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, দিনাজপুর- ৩০ নভেম্বর ও ১ থেকে ৩ ডিসেম্বর
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট- ১৪ নভেম্বর
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়- ২০ ও ২১ নভেম্বর
মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, টাঙ্গাইল- ২৭ ও ২৮ নভেম্বর
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়- ১৩ ও ১৪ ডিসেম্বর
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়- ২০ ও ২১ নভেম্বর

সভায় হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক মো. রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে সভায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন অর রশীদ, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক মো. শাদাত উল্লা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান, জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম, জাবি উপাচার্য প্রফেসর খালেদা একরাম, জবি উপাচার্য প্রফেসর ড. মীজানুর রহমান, রাবি উপাচার্য প্রফেসর মোহাম্মদ মিজানুদ্দিনসহ ২৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই