মেইন ম্যেনু

জোড় করে বিয়ে আটকালো ফেইসবুক!

‘বলপূর্বক’ বিয়ে আটকাতে ১০০ ডায়াল করে নয়, স্যোশাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুকে স্টেটাস আপডেট করলেন হায়দ্রাবাদের এক তরুণী। আর ফলও পেলেন হাতেনাতে। জোড় করে বিয়ে হওয়ার হাত থেকে রেহাই পেলেন তিনি।

জানা গেছে, বাবা ও দাদা জোড় করে বিয়ে দিতে চাইছে একজন ৩৮ বছরের পুরুষের সঙ্গে। এটা জানার পরই বছর ২৪-এর তরুণী ভেঙে পড়েন। পুলিশে যোগাযোগ করার পর সেখান থেকে প্রত্যাখ্যাত হন তিনি। পুলিশ তাঁকে পরিবারের মত মেনে চলার বুদ্ধি দেয়।

এরপর আর কোনও উপায় না দেখে সটান ফেসবুকে বিস্তারিত বর্ণনা সমেত পোস্ট করেন তিনি। জানান, কীভাবে ইচ্ছার বিরুদ্ধে বয়সে অনেকটাই বড় এক ব্যক্তির সঙ্গে তাঁকে জোর করে বিয়ে দেওয়া হচ্ছে। ফেসবুকে তাঁকে বাঁচানোরও আবেদন করেন ওই তরুণী।

রিপোর্ট অনুযায়ী, ফেসবুকে নিজের বিস্তারিত জানানোর পরই তরুণীর সঙ্গে বহু লোকে যোগাযোগ করে। অনেকে তাঁর মোবাইলে টাকা ভরে দেয় যাতে সে সবার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে। কয়েকজন মহিলা এরপর যুবতীটির বাড়িতে গিয়ে তাঁর পরিবারকে বোঝানোর চেষ্টা করে। পরে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৬ ও ৩৪১ ধারায় বাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে মামলা করে।

জানা গেছে, যুবতীটি আপাতত এক বন্ধুর বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে। এরপর তাঁর ফেসবুক পোস্টটিও মুছে দেওয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই