মেইন ম্যেনু

জয়া আহসানের প্রিয় শহর কলকাতা

ঢাকাই চলচ্চিত্রে এ সময়ের আলোচিত নায়িকাদের মধ্যে জয়া আহসান অন্যতম একজন। অভিনয়গুণ আর রূপ সৌন্দর্য্যের কল্যাণে এরই মধ্যে এদেশের অসংখ্য দর্শকের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। দর্শকপ্রিয় এ নায়িকা শুধু দেশেই নয়, পাশ্ববর্তী দেশ ভারতের কলকাতার ছবিতেও অভিনয় করে সমান আলোচিত।

দুই দেশের ছবিতে অভিনয়ের কারণে জয়াকে প্রায়ই ঢাকা-কলকাতা আসা যাওয়া করতে হয়। আর তাই তার বসবাসের শহরও এখন দুটি। একটি ঢাকা আর অন্যটি কলকাতা। শুধু তাই নয়, ঢাকার পর কলকাতাই এখন জয়ার প্রিয় শহর। এক সাক্ষাৎকারে আনন্দবাজার পত্রিকাকে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

জয়া বলেন, ঢাকার পরই আমার প্রিয় শহর কলকাতা। সারা পৃথিবীতেই তো ঘুরেছি, কিন্তু এ শহরে এলে মনে হয় যেন নিজের দেশেই আছি। শহর হিসেবে কলকাতার উষ্ণতা, সেখানকার মানুষের যে সহৃদয় আন্তরিকতা সেসব প্রসঙ্গে সংবাদ মাধ্যমটিতে বলেছেন জয়া।

বাংলাদেশের এই অভিনেত্রীর প্রথম ছবি ‘ডুবসাঁতার’ (২০১০), যদিও তার আগেই অতিথিশিল্পী ‘ব্যাচেলার’-এ (২০০৪), পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর প্রথম ছবিতে। সাধারণ দর্শক থেকে বিদগ্ধজন, সবার মনে ঠাঁই করে নিয়েছেন, দুইবার জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশে, ‘গেরিলা’ আর ‘চোরাবালি’তে অভিনয়ের জন্য। একের পর এক ছবিতে অভিনয় করে চলেছেন। বক্স-অফিসেও তুমুল সফল জয়া শুরু করেন মডেলিং দিয়ে, পরে টিভি নাটক ও সিরিয়ালে অভিনয়। তার অভিনয়ে মুগ্ধ কলকাতার নির্মাতারাও।

এরই মধ্যে জয়া অভিনয় করেছেন অরিন্দম শীলের ‘আবর্ত’ ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরীর ‘একটি বাঙালি ভূতের গপ্পো’ ও সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘রাজকাহিনি’তে। নতুন ছবির কাজে আগামীকাল কলকাতায় যাবেন জয়া। সেখানে নারীদিবস উপলক্ষে নন্দনে বিকেল সাড়ে ৪টায় কথা বলবেন তিনি। এ আলোচনার বিষয় ‘উইমেন ইন সিনেমা: ডাইভার্জড ডাইমেনশনস’। অনুষ্ঠানটির উদ্যোক্তা কলকাতার ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ।






মন্তব্য চালু নেই