মেইন ম্যেনু

ঝড় তোলা সেই পাকিস্তানী চা বিক্রেতা এখন পোশাকের মডেল

পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদের সুদর্শন এক চা-ওয়ালাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় উঠেছিল। শুধু পাকিস্তানেই নয়, এমনকী বৈরী প্রতিবেশী ভারতেও। সেই চা বিক্রেতা আরশাদ খানকে একটি পাকিস্তানি কোম্পানি তাদের পোশাকের মডেল করেছে।

নীল রঙা চোখের এই যুবক চা বানাতে বানাতে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে রয়েছে – এই রকম একটি ছবি কোনো একজন ক্রেতা সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করার পর সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। রাতারাতি তারকা খ্যাতি পেয়ে যায় আরশাদ খান।

একটি পাকিস্তানি প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যে তাদের পণ্যের মডেল হওয়ার জন্য জন্য আরশাদ খানের সঙ্গে চুক্তি করেছে। তাদের শার্ট পরা আরশাদ খানের ছবি ইতোমধ্যে অনলাইনে পোষ্ট করা হয়েছে।

১৮ বছর বয়সী আরশাদ খানকে নিয়ে পাকিস্তান আর ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায় গত কদিন ধরে মাতামাতি চলছে।

টুইটারে তার এই ছবি শেয়ার করছে এবং মন্তব্য করছে মূলত ভারত এবং পাকিস্তানের হাজার হাজার মেয়ে।

অনেক নারী এমন মন্তব্যও করছেন – এই চা-ওয়ালা তার চায়ের চেয়েও হট অর্থাৎ গরম। অনেকে লিখছেন – আরশাদই পারেন ভারত-পাকিস্তানের উত্তেজনা কমাতে।

রশিদ আবুবকর নামে পাকিস্তানের একজন তার টুইটার পাতায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদী এবং আরশাদ খানের ছবি পাশাপাশি রেখে পোষ্ট করেছেন। প্রধানমন্ত্রী মোদীর ছবির ওপরে লিখেছেন — ভারতের চাই-ওয়ালা,এবং আরশাদের ছবির ওপরে লিখেছেন — পাকিস্তানের চাই-ওয়ালা। তার পোষ্টের শিরোনাম ছিল — সার্জিকাল স্ট্রাইক ফ্রম পাকিস্তান।

দক্ষিণ এশিয়ার বাইরে থেকেও টুইটারে অনেকে মন্তব্য করছেন। মাইকেল কুগলম্যান নামে একজন লিখেছেন – ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা প্রশমিত হয়েছে, ইসলামাবাদের একজন চা-বিক্রেতা এখন সবচেয়ে হট-টপিক।

পাকিস্তানের একাধিক টিভি চ্যানেল এই চা বিক্রেতাকে খুঁজে বের করে তার সাক্ষাৎকার প্রচার করছে।

হঠাৎ খ্যাতি পাওয়া এই পাকিস্তানী যুবক আরশাদ খান বলেছেন, চলচ্চিত্রে ডাকা হলে সে একপায়ে খাড়া।

তবে যেভাবে রাতদিন মানুষজন ভিড় করে তার সাথে সেলফি তুলতে চাইছে, তাতে তার চায়ের দোকান বন্ধ হওয়ার জোগাড় হয়েছে। -বিবিসি






মন্তব্য চালু নেই