মেইন ম্যেনু

ঝাউডাঙ্গায় বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ শীর্ষক আলোচনা সভায় এমপি রবি

একরামুল কবীর, সাতক্ষীরা : শিক্ষাই প্রথম,“বাল্য বিবাহকে লাল কার্ড ” স্লোগানকে সামনে রেখে প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি বলেন বাল্য বিবাহের ক্ষতি সম্পর্কে ছেলে-মেয়েদের, অভিভাবকদের সচেতন করে তুলতে হবে। ছেলে-মেয়েদেরকে প্রথম পড়াশোনা, তারপর প্রতিষ্ঠিত, তারপর বিয়ে দিতে হবে।

অভিভাবকদের তিনি বিনয়ের সাথে বলেন আপনারা কেন মেয়েদেরকে বাল্য বিবাহ দেন? কেন তাদের পড়াশোনা না করিয়ে তাড়াতাড়ি বিয়ে দেন? আপনাদের সমস্যা কি? আপনাদের সমস্যাগুলো আমাদের সাথে, প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তার সাথে বলবেন। অবশ্যই আপনারা সহযোগিতা পাবেন।

বুধবার সকাল ১০ টায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলা ঝাউডাঙ্গায় শিক্ষাই প্রথম বাল্য বিবাহকে লাল কার্ড শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি আরো বলেন “মাত্র নয় মাস যুদ্ধ করে এদেশকে আমরা স্বাধীন করেছি। এ জাতির পক্ষে অসম্ভব কিছু নয়।

বাল্য বিবাহমুক্ত সাতক্ষীরা গড়ে তোলা কোন কঠিন কাজ না। এছাড়াও তিনি বলেন আমরা কোন না কোন মায়ের সন্তান। মায়েদেরকে সম্মান করতে হবে। ছাত্র-ফাত্রীদেরকে বলেন সুশিক্ষা গ্রহণ করে মানুষের মত মানুষ হবে। একদিন তোমরাই এদেশকে পরিচালনা করবে”।

এছাড়াও আলোচনা সভার সভাপতি ঝাউডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন “ বাল্য বিবাহমুক্ত ইউনিয়ন গড়তে আমরা এক কাতারে দাঁড়িয়েছি। সকলে কাধে কাধ মিলিয়ে কাজ করে বাল্য বিবাহের অভিশাপ থেকে ইউনিয়নকে মুক্ত করবো”।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু স্কুলের ছেলে-মেয়েদের উদ্দেশ্যে বলেন একদিন তোমরা বিশ্বের সেরা ক্রীড়াবিদ, রাজনীতিবিদ হবে। জতির পথ প্রদর্শক হিসাবে গড়ে উঠবে।

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন “ উচ্চ শিক্ষাই শিক্ষিত হয়ে তোমরা এদেশকে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করে তুলবে। মানবসম্পদকে দক্ষ করে তুলতে হবে। স্বাধীনতার চেতনাকে লালন করে দেশকে পরিচালনা করতে হবে”।

এছাড়াও বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর ইসলাম, ঝাউডাঙ্গা কলেজের অধ্যক্ষ খলিলুর রহমান, ঝাউডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম, তুজলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কাসেম, ঝাউডাঙ্গা বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রসিদ, ঝাউডাঙ্গা ফজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ তোফায়েল আহমেদ।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ব্রেকিং দ্যা সাইলেন্স এর সাতক্ষীরা পরিচালক শরিফুল ইসলাম। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি রমজান আলী বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক অমরেন্দ্র নাথ ঘোষ, সদর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক জাহিদ হোসেন, যুবলীগ নেতা,সোহরাব হোসেন সাজু , ইউনিয়নের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, সাংবাদিকবৃন্দ, সকল বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীগণএবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।






মন্তব্য চালু নেই