মেইন ম্যেনু

ঝিনাইগাতীতে অবৈধ ভাবে সার বিক্রির অপরাধে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমান

১ডিসেম্বর মঙ্গলবার সকালে শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার হলদীগ্রাম বাজারে ২ব্যবসায়ীকে অবৈধ ভাবে সার বিক্রির অপরাধে জনপ্রতি ১হাজার টাকা করে অর্থিক জরিমানা ও মোচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয় ভ্রাম্যমান আদালত।

ব্যবসায়ী দু’জন হলেন, বাদল ও ইউসুফ। স্থানীয় কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর সুত্রে জানা যায়, সরকার কর্তৃক নিয়োগকৃত বৈধ সার ব্যবসায়ীরা ছাড়া অন্য কোন ব্যবসায়ী ইউরিয়া, টিএসপি ও পটাশ সার খুচরা বা পাইকারী ভাবে বিক্রি করতে পারবেনা।

কিন্তু ঝিনাইগিাতী উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারের কিছু ব্যবসায়ী অধিক মুনাফার লোভে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে এলাকায় বৈধ ডিলার থাকা সত্বেও কীটনাশকের পাশাপাশি ইউরিয়া, টিএসপি ও পটাশ সার খুচরা বা পাইকারী ভাবে বিক্রি করে আসছেন। ইতিপূর্বেও এসব বিষয়কে কেন্দ্র করে হলদীগ্রাম বাজারের ঐ দুই ব্যবসায়ীর সাথে বৈধ ডিলারের মধ্যে অনেকটা সংঘাতময় পরিবেশ তৈরীী হয়।

পরে স্থানীয় কৃষি বিভাগের হস্তক্ষেপে বেশ কয়েক মাস নিয়ন্ত্রনে থাকলেও আবার মাথা চাড়া দিয়ে উঠে অবৈধ সার ব্যবসায়ীরা।

এই প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সেলিম রেজা সঙ্গীয় কুষি সম্প্রসারন কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম ও পুলিশ নিয়ে অভিযানে নেমে অবৈধ সার বিক্রির অপরাধে বাদল ও ইউসুফকে প্রত্যেককে ১হাজার টাকা জরিমানা এবং ভবিষ্যতে আর কোন দিন অবৈধ ভাবে সার বিক্রি করবেনা মর্মে ভ্রাম্যমান আদালতের কাছে লিখিত দিয়ে ছাড় ফেল ওই দুই ব্যবসায়ী।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সেলিম রেজা’র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন।






মন্তব্য চালু নেই