মেইন ম্যেনু

ঝুড়িতে মিলল জমজ সন্তান আর ৫ হাজার টাকা

পানিপথ জেলা থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শুরু করেন ক্যাম্পেন ‌‘বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও’। এ রাজ্যেরই মেয়ে অলিম্পিকে দেশের মুখ রক্ষা করা কুস্তিগীর সাক্ষী মালিক।

সেই হরিয়ানার পানিপথ থেকেই ঝুড়িত থেকে উদ্ধার হলো সদ্যজাত ২ যমজ শিশুকন্যা। মেয়ে হয়ে জন্মানোর অপরাধে বাবা-মা পরিত্যাগ করেছে তাদের।

এবিপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুধবার রাতে সেক্টর ১২ থেকে উদ্ধার করা হয় ২-৩ দিনের দুই শিশুকে। তোয়ালেতে মুড়ে একটি ঝুড়ির মধ্যে তাদের রাখা ছিল। সঙ্গে ৫,০০০ টাকা আর এক বোতল দুধ।

জানা গেছে, যে ওই বাচ্চা দুটিকে বুধবার গভীর রাতে ফেলে রেখে গেছেন, পরপর তিনটি বাড়ির বেল বাজান তিনি। দরজা খুলে বেরিয়ে এসে বাসিন্দারা সবাই ঝুড়ির মধ্যে শিশু দুটিকে আবিষ্কার করেন।

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাদের নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় সিভিল হাসপাতালে।

বাচ্চা দুটির ওজন স্বাভাবিকের তুলনায় কম হলেও তারা সুস্থ রয়েছে। হাসপাতাল কর্মীরা দেখাশোনা করছেন তাদের। কিন্তু এই দুই খুদেকে ফেলে রেখে যাওয়া সেই ব্যক্তির এখনো সন্ধান মেলেনি।

প্রাথমিকভাবে পুলিশি তদন্তে জানা গেছে, শিশু দুটি জন্মেছিল কোনও ধনী পরিবারে। তাদের ব্র্যান্ডেড জামা-কাপড় আর তোয়ালে তার ইঙ্গিত দিচ্ছে।

যে ব্যক্তি তাদের ফেলে যায়, তার কোনোভাবে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে, তা না হলে ঝুড়ি থেকে ৫,০০০ টাকা আর দুধের বোতল উদ্ধার হত না।

মনে করা হচ্ছে, সদ্যজাত দু’জনের বাবা-মা জানতেন, যমজ শিশু হতে চলেছে। আশা ছিল, তাদের মধ্যে একজন ছেলে হবে। কারণ তাদের জামাকাপড় তেমনই ইঙ্গিতবাহী। কিন্তু দু’জনেই মেয়ে হওয়ায় পরিত্যক্ত হয়েছে তারা।

যদি বাবা-মাকে খুঁজে না পাওয়া যায়, তবে তাদের কোনো অনাথাশ্রমে পাঠানো হবে, যাতে কোনো সহৃদয় পরিবার তাদের দত্তক নেয়।






মন্তব্য চালু নেই