মেইন ম্যেনু

টস ছাড়াই ক্রিকেট ম্যাচ!

ক্রিকেট ম্যাচ শুরুর আগে টসের মাধ্যমেই নির্ধারিত হয় শুরুতে কোন দল বোলিং বা ব্যাটিং করবে। ক্রিকেটের পুরোনো অনেক নিয়মের মধ্যে এই টস করাও অন্যতম। কিন্তু ইংলিশ কাউন্ট্রি ক্রিকেটের দ্বিতীয় বিভাগে আগামী মৌসুম থেকে উঠে যেতে পারে টস। ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) টস উঠিয়ে দেয়ার ব্যাপারে চিন্তা-ভাবনা করছে বলেই জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি টেলিগ্রাফ।

যদিও এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য তাকিয়ে থাকতে হবে বৃহস্পতিবারের ইসিবি কার্যনির্বাহী কমিটির বোর্ডের মিটিংয়ের দিকে। বোর্ড মিটিংয়ে যদি টসের নিয়ম উঠেই যায়, তবে আগামী মৌসুম থেকে পরীক্ষামূলক ভাবে সেই সিদ্ধান্তের প্রয়োগ দেখা যেতে পারে ইংলিশ ক্রিকেটে। আর সেক্ষেত্রে সফরকারী দলকে ব্যাটিং বা বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেবার সুযোগ দেয়া হবে।

গত আগস্টেই সাবেক অস্ট্রেলিয়ান ক্যাপ্টেন রিকি পন্টিং বলেছিলেন, টেস্ট ক্রিকেটে টসের নিয়ম উঠিয়ে দেয়া উচিৎ। এর আগে সাবেক ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান বোলিং গ্রেট মাইকেল হোল্ডিংও দিয়েছিলেন একই মত। তারা দুইজনই টেস্টের সফরকারী দলের উপরই প্রথমে ব্যাটিং বা বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়ার পক্ষেও মত দিয়েছিলেন। এর পক্ষে তাঁদের যুক্তি ছিল, এটা হলে স্বাগতিক দেশগুলো শুধুই নিজেদের বোলার আর ব্যাটসম্যানদের সুবিধা অনুযায়ী পিচ বানাতে পারবে না। ফলে টেস্ট ক্রিকেটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা আরো বাড়বে। সাবেক অজি অধিনায়ক স্টিভ ওয়াহও ছিলেন এই মতের পক্ষেই।

অবশ্য সাবেক পাকিস্তানি ব্যাটিং গ্রেট জাভেদ মিয়াদাদ টস উঠে দেয়ার বিপক্ষে মত দিয়েছিলেন। পাকিস্তানের এক ওয়েবসাইটকে দেয়া সাক্ষাৎকারে মিয়াদাদ বলেছেন, ‘শতাব্দী পুরোনো এই নিয়মটি উঠিয়ে না দিয়ে আইসিসি বরং টেস্ট ক্রিকেটের অন্যান্য ত্রুটিগুলোর ব্যাপারে আরো মনোযোগী হতে পারে।’






মন্তব্য চালু নেই