মেইন ম্যেনু

টাইগারদের সামনে অনভিজ্ঞ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল

চলতি মাসের শেষে দিকে দুই ম্যাচ টেস্ট ম্যাচ খেলার জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট টিম। টাইগারদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের জন্য ১৫ সদস্যর এক তারুণ্য নির্ভর দল ঘোষণা করেছে তারা। যা একেবারে অনভিজ্ঞ একটা স্কোয়াড। এ এমনই এক স্কোয়াড, অনভিজ্ঞতা যার প্রতি পরতে পরতে মিশে আছে।অধিনায়ক হিসেবে টেস্টে অজিদের পূর্ণাঙ্গ সিরিজে অধিনায়কত্ব দেয়ার অভিজ্ঞতা নেই স্টিভ স্মিথের। তার ডেপুটি হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে যাকে, সেই এডাম ভোজেসের তো টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতাই সাকুল্যে সাতটি।

তবে এরকমটাই যে ঘটতে চলেছে তা ধারণা করা গেছিল আগেই। কারণ এশেজের লজ্জাজনক হারের পর অবসর নিয়েছেন মাইকেল ক্লার্ক, ক্রিস রজার্স, ব্রাড হাডিন আর শেন ওয়াটসন। পেসার মিচেল জনসন আর জশ হ্যাজলউডকে যে এ সিরিজে বিশ্রামে রাখা হবে, জানা ছিল তা-ও। এছাড়া মাত্র কিছুদিন আগেই আঙ্গুলের চোটের কারণে ছিটকে গেছেন ডেভিড ওয়ার্নার।

আর সেজন্যই অভিজ্ঞতাহীন তারুণ্যে ঘেরা এ স্কোয়াডের ১৫ জন খেলোয়াড় মিলে টেস্টের সংখ্যা মাত্র ২৪২টি। ক্যামেরন ব্যানক্রফট আর এন্ড্রু ফেকেট টেস্ট দলে ডাক পেলেন প্রথমবারের মত। এছাড়া জো বার্নস আর উসমান খাজাও লম্বা বিরতির পর ডাক পেয়েছেন এই নতুন রূপের অস্ট্রেলিয়া স্কোয়াডে। বছরখানেক বাদে আবার টেস্ট খেলার সুযোগ এসেছে সীমিত ওভার স্পেশালিস্ট গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সামনেও। এছাড়াও দলের সিনিয়রদের অবসর, ইনজুরি আর বিশ্রামের সুবাদে ভাগ্য খুলেছে প্যাট কামিনসেরও। আর ফর্মহীনতা সত্ত্বেও দলে ঠিকই ঠাঁই মিলেছে শন মার্শের।






মন্তব্য চালু নেই