মেইন ম্যেনু

টাইগারদের সামনে সিরিজ জয়ের হাতছানি

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ ফেভারিট, সিরিজে শুরুর আগে এমন ‘সাহসের’ কথা কেউ বলেনি। কিন্তু প্রথম ম্যাচে ৭৯ ম্যাচের বিরাট ব্যবধানে জয় পাওয়া বাংলাদেশকে এখন ফেবারিট বলবে না কে? বাংলাদেশ এখন ইতিহাসের সামনে দাঁড়িয়ে। আজ মিরপুরে দ্বিতীয় ওয়ানডে জিতলেই পরাক্রমশালী ভারতের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো সিরিজ জিতবে টাইগাররা। রচিত হবে নয়া ইতিহাস।

দেশের মাটিতে টানা নয় ম্যাচে জয় পাওয়া বাংলাদেশ সেই ইতিহাসের জন্য প্রস্তুতও। গত বছর জিম্বাবুয়েকে ৫-০তে উড়িয়ে দেওয়া। পাকিস্তানকে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ। তার আগে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠা। এবং গত শুক্রবার ভারতকে ৭৯ রানে উড়িয়ে দেওয়া। আত্মবিশ্বাসে বলিয়ান হওয়ার যে অনেক রসদ আছে টাইগারদের পিছনে।

প্রথম ম্যাচে চার পেসারের ফরমূলা দারুণ কাজে দেয়। এ ম্যাচেও নাকি একাদশে কোনো পরিবর্তন নেই। মানের আগের দলটি নিয়েই এদিন ম্যাটে নামছে বাংলাদেশ। শুক্রবার মাত্র ৩ রানে আউট হওয়া লিটন দাস খেলবেন স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান হিসেবেই। আর উইকেটের পিছনে থাকছেন যথারীতি মুশফিকুর রহিম।

একাদশে খুব সম্ভবত কোন পরিবর্তন আনছে না ভারতও। যথারীতি দুই স্পিনার এবং তিন পেসার। যদিও অল রাউন্ডার রজার বেনি এবং ধাওয়াল কলকর্নির কথা আলোচনায় আছে অল্প বিস্তর। কিন্তু প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়ায় এ ম্যাচে ‘এক্সপেরিমেন্ট’ করতে চাইবেন না ভারত অধিনায়ক। তাই আগের দলটা নিয়েই হয়ত এদিন মাঠে নামবে ভারত।

উইকেট নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। গত দুই দিন বৃষ্টি না হওয়ায় উইকেট পুরোপুরি শুস্ক। মানে ব্যাটসম্যান এবং স্পিনারদের অেেনক কিছুই করার আছে এখানে। তবে বাংলাদেশ যেহেতু ফের চার পেসার নিয়ে খেলতে যাচ্ছে, তারমানে এখানে পেসারদের জন্য কিছু একটা আছে যেটা গভীরভাবে লক্ষ্য করেছেন কোচ হাথুরাসিংহে।

গত ম্যাচে বাংলাদেশ রান করেছে ৩০৭। এবং ভারতেকে অল আউট করেছে ২২৮ রানে। তারপরেও বাংলাদেশ কোচ হাথুরাসিংসে পুরোপুরি খুশি নন। তিনি মনে করেন, ঐ ম্যাচে আরো ভালো খেলা উচিৎ ছিল। ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে তিনি বললেন,‘ প্রত্যেক বিভাগেই আমাদের উন্নতির জায়গা আছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে আমরা এর চেয়ে ভালো খেলেছিলাম। রোববার জিততে হলে আমাদের আরো ভালো করতে হবে।’

প্রচন্ড চাপে আছে ভারত। যে ভাবেই হোক দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের জিততে হবে। সংবাদ সম্মেলনে তারই ইঙ্গিত দিলেন রোহিত শর্মা। সঙ্গে বাংলাদেশকে একটু তাচ্ছিল্য করতে ভুলেননি। বলেছেন,‘ আসলে বাংলাদেশের হারানোর কিছু নেই। কিন্তু ভারতের অনেক কিছুই আছে হারানোর। তাই আমাদের এ ম্যাচে আরো সতর্ক হয়ে খেলতে হবে।’



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই