মেইন ম্যেনু

টাটা সম্পর্কে অবাক করা ৭টি তথ্য!

রতন নওল টাটা। উপমহাদেশের বাণিজ্য-ইতিহাসে একটি পৃথক এবং সুবিশাল অধ্যায়ের নাম। টাটা গ্রুপের কর্ণধর। ভারত-বাংলাদেশসহ বিশ্বের অসংখ্যক দেশে রয়েছে ছড়িয়ে রয়েছে তার ব্যবসা। তার জীবনে এমন কিছু ঘটেছে, যা নিশ্চিতভাবেই বেশ অবাক করার মতো। খবর এবেলার।

১. জামশেদজি টাটার প্রপৌত্র রতন নওল টাটার ছোটবেলা বেশ কষ্টের। অর্থাভাব ছিল না। ছোটবেলায় তাকে আত্মীয়দের থেকে দত্তক নিয়েছিলেন দাদিমা নবাজবাই টাটা। ফলে মাত্র ১০ বছর বয়সেই বাবা-মায়ের থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার যন্ত্রণাটা ছিল। তার স্বামী রতনজি টাটা মারা যাওয়ার পরে নবাজবাই রতন টাটাকে দত্তক নেন।

২. রতন টাটা বিয়ে করেননি। কিন্তু শোনা যায়, তার জীবনে চারবার প্রেম এসেছিল। কিন্তু একটি সম্পর্কও টেকেনি। শেষ সম্পর্কটি প্রায় বিয়ে পর্যন্ত গড়িয়েছিল বলে শোনা যায়। কিন্তু সেটিও শেষ পর্যন্ত পূর্ণতা লাভ করেনি।

৩. আইবিএম-এ চাকরিপ্রার্থী ছিলেন রতন টাটা। কিন্তু তার আবেদন গৃহীত হয়নি। শেষ পর্যন্ত টাটা স্টিলে চাকরি করতে ঢোকেন।

৪. হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি স্কুল অফ বিজনেস থেকে স্নাতক হয়েছিলেন রতন টাটা। তার সহপাঠী কে ছিলেন জানেন? আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ।

৫. ২৬/১১-র হামলার পরে অন্তত ৬ মাস স্পষ্টভাবে কথা বলতে পারতেন না রতন টাটা।

৬. টাটা গোষ্ঠীর দায়িত্ব থেকে অব্যহতি নিয়েছেন। কিন্তু এখনও দিনে অন্তত ১০-১২ ঘণ্টা কাজ নিয়েই কাটান।

৭. শোনা যায়, পৃথিবীর সবথেকে সস্তা গাড়ি ‘ন্যানো’ ছিল তারই মস্তিষ্কপ্রসূত।






মন্তব্য চালু নেই