মেইন ম্যেনু

টার্গেট কিলিং ঠেকানো কঠিন

লালমাটিয়ায় শুদ্ধস্বর প্রকাশনী এবং আজিজ সুপার মার্কেটে ঢুকে হত্যা ও হামলার নেপথ্যে একই ব্যক্তি জড়িত থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবির) যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, টার্গেট কিলিং ঠেকানো কঠিন হয়ে পড়ে। কিন্তু আমরা চেষ্টা করছি। বিভিন্নজনকে হুমকির বিষয়টি যাচাই-বাছাই করে দেখা হচ্ছে।

আজ রবিবার দুপুরে মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার বলেন, আমরা ধারণা করছি আনসারুল্লাহ বাংলাটিম বা তার কোনো অঙ্গ সংগঠন এ হামলার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে। কোরবানির পর থেকে আমরা এখন পর্যন্ত ৫-৬ জনকে আটক করেছি। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

লালমাটিয়ার ঘটনায় যারা আহত হয়েছেন তারা এখন আশঙ্কামুক্ত এবং সুস্থ হয়ে উঠলে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানান তিনি। এছাড়াও একই সঙ্গে রাজধানীতে দুইটি ঘটনায় ইতোমধ্যে দুইজন প্রত্যক্ষদর্শীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, অভিজিত হত্যার ঘটনায় আমেরিকান গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই যে ১১টি আলামত সংগ্রহ করেছিল সেগুলোর ব্যাপারে যাচাই-বাছাইয়ের পরে তারা কোনো তথ্য আমাদের দেয়নি সংস্থাটি।

শনিবার রাজধানীর শাহবাগে কুপিয়ে হত্যা করা হয় জাগৃতি প্রকাশনীর প্রকাশক-মালিক ফয়সাল আরেফিন দীপনকে। শাহবাগের আজিজ মার্কেটের তৃতীয় তলায় জাগৃতির অফিস থেকে সন্ধ্যায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। এর আগে লালমাটিয়ায় শুদ্ধস্বর প্রকাশনীর কার্যালয়ে ঢুকে প্রকাশকসহ তিনজকে কুপিয়ে ও গুলি করে আহত করে দুর্বৃত্তরা।






মন্তব্য চালু নেই