মেইন ম্যেনু

টিকে থাকুক আদরের সম্পর্ক

অনেক আদরে গড়া সম্পর্কগুলো কখনো খুব সহজে ভেঙে যায়। সামান্য অসর্তকতায় ছোট ত্রুটিগুলো হয়ে ওঠে বড়। পরিণতি হিসেবে থেকে যায় ভগ্ন হৃদয়ের নিঃসঙ্গতা। কিন্তু ঝগড়া বা তর্ক হলেই যে তা সম্পর্ক ছেদে যেতে হবে তা কিন্তু নয়। তাই কিছু বিষয়ে সাবধান হলে টিকিয়ে রাখা সম্ভব আদরের সম্পর্কটি।

প্রভাব বিস্তার নয়

সঙ্গীর ব্যক্তিত্ব দেখে তাকে পছন্দ করেছিলেন। সম্পর্কের এই পর্যায়ে এসে তাকে আমূল বদলাতে চেষ্টা করবেন না। কারোর সঙ্গে তুলনা করে বদলাতে বলবেন না। এতে আপনার সঙ্গীর মনে হীনমন্যতা তৈরি হবে। আবার হয়তো একদিন তিনি বদলে যাবেন কিন্তু সেদিন হয়তো আপনার প্রয়োজনও তার কাছে ফুরিয়ে যাবে।

মনোযোগ বাড়িয়ে দিন

আপনার সঙ্গীর কথা মনোযোগ দিয়ে শুনুন। তার অভিযোগ, ভালোলাগা, মানসিকতা, প্রত্যাশা সম্পর্কে জেনে নিন সবকিছু। নিজের সম্পর্কেও তাকে বোঝানোর চেষ্টা করুন। এতে আপনাদের সম্পর্ক মজবুত হবে।

তৃতীয় কেউ নয়

অনেক সময় একটি সম্পর্ক ভেঙ্গে যাওয়ার জন্য তৃতীয় মানুষ যথেষ্ট। তাই চেষ্টা করুণ আপনাদের সম্পর্কের ব্যক্তিগত ব্যাপারে যতটা সম্ভব গোপনীয়তা বজায় রাখতে। ঝগড়া ঝাঁটি হলেই বাইরের কোন বন্ধুকে সমঝোতার জন্যে ডেকে আনবেন না। নিজেরা সমাধানের চেষ্টা করুন।

সঙ্গীর পরিবারের যত্ন

শুধু নিজের পরিবারই নয়, গুরুত্ব দিন সঙ্গীর পরিবারকেও। নিজে সব সময় পরিবারের উপকারে কাজ না করতে পারলেও সচেতন থাকুন। খেয়াল রাখুন আপনার কারণে যাতে সঙ্গীর পরিবারের কোন দূরত্ব তৈরি না হয়।

স্বল্পমেয়াদী ঝগড়া

দাম্পত্যে ঝগড়া একটি সম্পর্কে অনিবার্য বিষয়। কিন্তু তাই বলে দীর্ঘসময় যেন সেটি না গড়ায়। অল্প সময়ের ঝগড়া সম্পর্ককে মজবুত করে কিন্তু দীর্ঘমেয়াদের ঝগড়া সুখের সম্পর্ককে বিচ্ছেদের দিকে নিয়ে যায়।

দুর্বলতা নিয়ে খোঁচা দেয়া নয়

প্রত্যেকের জীবনেই একটি অতীত থাকে। হয়তো সঙ্গীর প্রথম প্রেম আপনি নন, কিন্তু তাই বলে তাকে অতীত নিয়ে খোঁচাবেন না। এতে তিনি যেমন বিরক্ত হবেন তেমনি আপনার মাঝেই নিরাপত্তাহীনতা তৈরি হবে।






মন্তব্য চালু নেই