মেইন ম্যেনু

টিচার্স ট্রেনিং কলেজের পাঠ্যক্রম তলব

দেশের সব সরকারি ও বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের পাঠ্যক্রম, পরীক্ষা ও পরিচালনা পদ্ধতির নথিপত্র তলব করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে সরকারকে তা দাখিল করতে বলা হয়েছে।

আজ সোমবার সকালে এ বিষয়ে করা লিভ টু আপিলের (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) শুনানি মুলতবি করে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মোহাম্মদ বজলুর রহমান।

আদালতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম। বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজগুলোর পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন।

পরে আমাতুল করিম জানান, ২০০৮ সালের ১৫ মে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা সার্কুলারের একাংশে বলা হয়, সরকারি টিচার্স কলেজ থেকে বিএড প্রশিক্ষণ গ্রহণ বাধ্যতামূলক।

এই সাকুর্লারের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ২০০৯ সালের ২৩ জুলাই বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি ও সাতক্ষীরার হাজী ওয়াজেদ আলী টিচার্স ট্রেনিং কলেজের অধ্যক্ষ নাজিরুল ইসলাম হাইকোর্টে রিট করেন।

রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আদালত রুল জারি করেন।

২০১৩ সালের ১১ জুলাই হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ এ বিষয়ে জারি করা রুল নিষ্পত্তি করে রায় দেন। রায়ে বলা হয়, এই সার্কুলারের মাধ্যমে বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিংগুলোর অধিকার খর্ব করা হয়েছে।

পরে হাইকোর্টের এই রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সেই লিভ টু আপিলের শুনানি মুলতবি করে আদালত আজ নথিপত্র তলব করেন।

আমাতুল করিম জানান, দুই সপ্তাহ পর আবার বিষয়টি শুনানির জন্য আপিল বিভাগের তালিকায় আসবে।






মন্তব্য চালু নেই