মেইন ম্যেনু

টিভি সাক্ষাতকারে ভুল বলায় পুনরায় পরীক্ষায় বসতে হচ্ছে ১৪ শিক্ষার্থীকে (ভিডিও)

টিভি সাক্ষাতকারে ভুল উত্তর দেওয়ায় উত্তীর্ণ ১৪ শিক্ষার্থীকে পুনরায় পরীক্ষার টেবিলে বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিহার রাজ্য সরকার।

পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে থাকতে পারে-রাজ্য সরকারের এমন আশঙ্কার পর মাধ্যমিকে উত্তীর্ণ ওই ১৪ শিক্ষার্থীর পুনরায় পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার বিবিসিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, রুবি রায় নামের ১৭ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থী স্থানীয় একটি চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাষ্ট্রবিজ্ঞানকে রান্না সংক্রান্ত বিষয় বলে উল্লেখ করার পর শিক্ষার্থীদের পুনরায় পরীক্ষা নেওয়ার এই সিদ্ধান্ত আসে।

রুবি রায়সহ আরো কয়েকজনের সাক্ষাৎকারের ভিডিওটি ভারতে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এছাড়া গেল বছর তোলা একটি ছবিতে দেখা যায়, এই রাজ্যের একটি স্কুলের দেয়াল টপকে শিক্ষার্থীদের নকল সরবরাহের চেষ্টা করছে শিক্ষার্থীদের পিতা-মাতাসহ অন্যরা।

এ ঘটনায় বিব্রত রাজ্য সরকার চলতি বছর যেন এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয় সেজন্য নকল করা ও সরবরাহের ঘটনায় জরিমানা এবং কারাদণ্ডের বিধান ঘোষণা করেছিল।

গেল সপ্তায় রাজ্যটিতে মাধ্যমিকের ফলাফল ঘোষণার পর দেখা যায়, পাশের হার উল্লেখযোগ্যভাবে কম। তাতে ধারণা করা হয়েছিল, সরকারের উদ্যোগ কাজে দিয়েছে। অন্ততপক্ষে মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী রুবি রায়ের সাক্ষাৎকার সম্প্রচারিত হওয়ার আগ পর্যন্ত এই ধারণা পোক্তই ছিল।

রাজ্য সরকার জানিয়েছে, মানবিক শাখার রুবি রায়সহ রসায়ন বিষয়ে সাধারণ প্রশ্নের উত্তর দিতে না পারায় বিজ্ঞান শাখায় প্রথম হওয়া সৌরভ শ্রেষ্ঠর ফলাফল অবিলম্বে স্থগিত করা হয়েছে।

বিহারের পরীক্ষা বিষয়ক চেয়ারম্যান লালকেশওয়ার প্রসাদ সিং ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এই দুই শিক্ষার্থীসহ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আরো ১২ জন শিক্ষার্থীকে ৩ জুন লিখিত পরীক্ষা এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে গঠিত প্যানেলের কাছে মৌখিক পরীক্ষা দিতে হবে।

তাদের হাতের লেখাও পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই