মেইন ম্যেনু

টুইন টাওয়ারে ভয়াবহ আগুন, আটকা পড়েছে বাসিন্দারা

রাজধানীর শান্তিনগেরর বহুতল ভবন টুইন টাওয়ার্স কনকর্ড শপিং কমপ্লেক্স ভবনে মঙ্গলবার গভীর রাতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ২১ তলা ভবনটির নিচের কয়েকটি তলায় মার্কেট এবং ওপরে আবাসিক ফ্ল্যাট রয়েছে।

রাত ১টায় এই আগুন লাগে। তবে ভবনে অনেক মানুষ আটকা পড়লেও রাত পৌনে ৩টা পর্যন্ত হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ভবনের ১০ তলা থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। রাতে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছিল।

সংশ্লিষ্টর জানান, ১০ তলার মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব হয়েছে। ভবনটির ভেতরে বেশকিছু মানুষ আটকা পড়েছে। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছিল।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা ভজন কুমার সরকার রাত আড়াইটার দিকে বলেন, ‘আগুন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। তবে সার্বিক অবস্থা এখন বোঝা যাচ্ছে না।’

তিনি জানান, রাত ১টার দিকে টুইন টাওয়ারের ১০ তলার একটি বাসা থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। পরে দ্রুত তা ভবনে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক মাসুদুর রহমান আখন্দ ও উপপরিচালক (ডিডি) মোজাম্মেল হক উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেন।

রাত ২টায় ডিডি মোজাম্মেল হক বলেন, ‘ভবনটিতে বেশকিছু মানুষ আটকা পড়েছে। উঁচু মই ব্যবহার করে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে। কয়েকজনকে উদ্ধার করা হয়েছে। আগুন এখনো পুরোপুরি নেভেনি। তবে নিয়ন্ত্রণে এসে গেছে। এ মূহূর্তে বিস্তারিত বলা যাচ্ছে না।’

পল্টন মডেল থানার ওসি মোর্শেদ আলম বলেন, ‘রাত ১টার পর ভবনটিতে আগুন লাগে। ভবনটির নিচের কয়েকটি তলায় মার্কেট রয়েছে, ওপরে আবাসিক ফ্ল্যাট। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা কাজ করছে। এর বেশিকিছু জানা যায়নি।’

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা জানান, আগুন লাগার ঘটনায় মালিবাগ-শান্তিনগর এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। একঘণ্টা পর (২টার দিকে) ভবনটির ১০ তলা থেকে আর আগুন দেখা যায়নি। তবে ধোঁয়া বের হচ্ছিল। ওপরের দিকে আটকা পড়া লোকজন হাত নেড়ে, টর্চ জ্বালিয়ে এবং জানালার কাঁচ ভেঙে উদ্ধারের আবেদন জানাচ্ছিল।

রাত সোয়া ২টা পর্যন্ত কয়েকটি তলা থেকে চার-পাঁচজনকে উদ্ধার করে নামিয়ে আনেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। তাদের মধ্যে একজনকে ১০ তলা এবং আরেকজনকে ছাদ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

উদ্ধার পাওয়া দুই নারী দাবি করে করেছেন, প্রতিটি ফ্ল্যাটের দু’চারজন করে আটকা পড়েছেন। কমপক্ষে ৫০-৬০ জন আটকা আছেন। তারা সিঁড়িতে ও ফটকের তালা ভেঙে ছাদে উঠে আশ্রয় নিয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা বলছেন, আগুন ১০ তলার মধ্যেই নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন তারা। অবশ্য রাত পৌনে ৩টার দিকে ‘আগুন নিয়ন্ত্রণে’ দাবি করছেন। এতে বড় ধরনের হতাহতের ঘটনা ঘটবে না বলেও আশা করছেন উদ্ধারকারীরা।






মন্তব্য চালু নেই