মেইন ম্যেনু

টেকনাফের বেড়ীবাধঁ নির্মিত না হওয়ায় দু’ তৃতীয়াংশ তলিয়ে যাচ্ছে সাগরে

ফয়েজুল ইসলাম রানা, টেকনাফ: দীর্ঘ দিন পর্যন্ত বেড়ীবাধঁ নির্মিত না হওয়ায় টেকনাফের দু’ তৃতীয়াংশ এলাকা সাগরে তলিয়ে যাচ্ছে। এগুলো হচ্ছে, টেকনাফ পৌরসভার চৌধুরী পাড়া হতে সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীরদ্বীপ পর্যন্ত। এসমস্ত এলাকা জোয়ার হলে পানিতে থৈ থৈ করে। তলিয়ে যায় বসত বাড়ী, চিংড়ি ঘের, লবণ মাঠ ও ফসলী জমি।

এলাকা পরিদর্শনে দেখা যায়, টেকনাফ পৌরসভার চৌধুরী পাড়া, জালিয়া পাড়া, হাঙ্গর ডেইল, নাজির পাড়া, মৌলভী পাড়া, সাবরাং, নয়া পাড়া, হারিয়াখালী ও শাহপরীরদ্বীপ। এলাকার লোকজন জানায়, প্রায় ৫হাজার পরিবার বর্তমানে জোয়ার ভাটার পানির সাথে যুদ্ধ করে বসবাস করছে। দীর্ঘ দিন পর্যন্ত বেড়ীবাধঁ জরাজীর্ণ হয়ে পড়লে ও বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) ও কোন প্রশাসন এগিয়ে না আসায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

দিন দিন টেকনাফে ভূ-খন্ড সাগরে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। সাগরে নিয়ে যাচ্ছে অসংখ্য ঘর-বাড়ী, স্কুল-মাদ্রাসা, মসজিদ সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, ফসলী জমি, চিংড়িঘের ইত্যাদি। যে ভাবে ভূ-খন্ড সাগেরর পানিতে ক্ষয় হয়ে যাচ্ছে আগামী ৪/৫বছরের মধ্যে টেকনাফের মূল ভূ-খন্ডের দু’ তৃতীয়াংশ সাগরে বিলীন হয়ে যাবে ।

এদিকে এ ব্যাপারে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান নুর হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তারই গোটা ইউনিয়নের দু’ তৃতীয়াংশ ভূ-খন্ড সাগরের কবলে পড়েছে। প্রায় ৪/৫টি গ্রাম জোয়ার হলে পানিতে থৈ থৈ করে। জোয়ারে কবলিত লোকজনের আহাজারীতে আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠে। এদের মধ্যে শাহপরীরদ্বীপের প্রায় ৩৫হাজার পরিবার এখন পানির সাথে প্রাণ পন যুদ্ধ করে বেচেঁ আছে।

শাহপরীরদ্বীপটি বর্তমানে একটি চির বিচ্ছিন্ন দ্বীপে পরিনত হয়েছে। দ্বীপের লোকজন অভিশপ্ত জীবন যাপন করছেন। এদেরকে মুক্ত করার মত কোন সংস্থা নেই। এর পাশাপাশি বর্তমানে আমার ইউনিয়নের হারিয়াখালী থেকে আরম্ব করে সদর ইউনিয়নের মৌলভী পাড়া সীমা পর্যন্ত প্রায় ৭/৮টি গ্রাম বেড়ীবাধঁ নির্মিত না হওয়ায় জোয়ারের পানিতে প্রতিদিন থৈ থৈ করছে এবং জোয়ারের প্রচন্ড ঢেউতে ভেঙ্গে নিয়ে যাচ্ছে গ্রামের পর গ্রাম।

বেড়ীবাধঁ পুনঃ নিমার্ণ করা না গেলে আগামী ২/১ বছরের মধ্যে অনেক গ্রাম তলিয়ে যাবে। এ ব্যাপারে তিনি ইউনিয়ন বাসীর পক্ষ থেকে একজন জন প্রতিনিধি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী, পানি সম্পদ মন্ত্রী ও উখিয়া টেকনাফ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্জ্ব আব্দুর রহমান বদির আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই