মেইন ম্যেনু

টেকনাফে জমে উঠছে কোরবানী পশুর হাট

পবিত্র ঈদুল আযাহাকে সামনে রেখে টেকনাফে জমে উঠছে কোরবানী পশুর হাট। কিন্তু দাম অত্যান্ত চড়া। সাধারণ লোকজনদের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। পশুর হাট পরিদর্শন করে বিভিন্ন ক্রেতাদের সাথে আলাপ করা হলে মিয়ানমার থেকে গবাদী পশু আমদানী কারক আবু সৈয়দ মেম্বার ও শহীদ জানায়, ভারত থেকে পশু আমদানী বন্ধ থাকায় পশুর দাম ২/৩ গুন বাড়ছে, তবে মিয়ানমার থেকে প্রচুর পরিমাণ গবাদী পশু আনার জন্য সে দেশের ব্যবসায়ীদের চুক্তি করেছি। যা চুক্তি অনুযায়ী পশু আসতে শুরু করেছে।

তবে সমস্যা হচ্ছে যে, মিয়ানমার সীমান্ত রক্ষী বিজিপি ও পৌ বাহিনীর উর্ধতন অফিসারগণ মাঝে মধ্যে টহলে আসলে গাবাদী পশু বুঝায় ট্রলার গুলো ধরে নিয়ে যায় এবং যদি এদের তৎপরতা একটু কমে এবং আবহাওয়া যদি আমাদের অনুকূলে থাকে তাহলে পবিত্র কোরবান উপলক্ষে মিয়ানমার থেকে প্রচুর পরিমাণ গবাদী পশু আসবে। যা চট্টগ্রাম দক্ষিন অঞ্চল ছাড়াও দেশের চাহিদার সিকিভাগ যোগান দেওয়া সম্ভব হবে।

মিয়ানমার থেকে গবাদী পশু আসা অব্যাহত থাকলে স্থানীয় বাজার গবাদী পশুর দাম কমতে থাকবে এবং সাধারণ লোকজনদের ক্রয় ক্ষমতা মধ্যে চলে আসবে। এদিকে স্থানীয় লোকজন জানায়, যে সমস্ত গবাদী পশু কোরবান উপলক্ষে বিক্রির জন্য কৃষককেরা মোটা তাজাকরন ও লালনপালন করছে, তা বিক্রি করার জন্য বাজারে আনতে শুরু করেছে। যা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে।

মিয়ানমার ও দেশীয় পশু বাজারে আসলেই পশুর দাম কমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে টেকনাফ কাষ্টম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে বিগত ১সপ্তাহের ব্যবধানে ৫ হাজারেও বেশী গবাদী পশু মিয়ানমার থেকে আমদানী হয়েছে। যার সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে।






মন্তব্য চালু নেই