মেইন ম্যেনু

টেকনাফে জাল টাকার ছড়াছড়ি

টেকনাফে পবিত্র কোরবানকে সামনে রেখে জাল টাকার ছড়াছড়ি হয়ে পড়েছে। সাধারণ লোকজন আসল নকল পরখ করতে না পারায় প্রতারনার শিকার হচ্ছেন। দেশের জাল ও নকল টাকা তৈরীর সিন্ডিকেট শহর এলাকায় নিরাপত্তার অভাব বিধায় মফস্বল এলাকাকে বেচেঁ নেয়।

এখানে এসে স্থানীয় কিছু বখাটে লোকজনকে শেয়ার হোল্ডার হিসেবে পাশে নিয়ে শুরু করে নকল টাকা বেচা বিক্রির ব্যবসা। খোজঁ নিয়ে জানা যায়, এ নকল টাকা ইদানিং ব্যাংকেও পাওয়া যাচ্ছে। কতিপয় অসাধু কর্মচারী নকল টাকা সরবরাহকারী সিন্ডিকেটের সাথে আতাত করে ব্যাংক থেকে নগদ টাকা প্রদানের সময় বড় বড় বান্ডিলে কয়েকটি করে ধরিয়ে দেয়।

ব্যাংক ছাড়া কোরবানী পশুর হাটে, বিপনি বিতানে এ নকল টাকা ছাড়ছে। সাধারণ ক্রেতা বিক্রেতারা প্রতিনিয়ত এ নকল টাকা নিয়ে প্রতারনার শিকার হচ্ছেন। এই নকল টাকার মধ্যে বেশীর ভাগই হচ্ছে ১ হাজার ও ৫শ টাকার নোট। এই নকল টাকা এমন আইন যার হাতে পাওয়া যায় সেই অপরাধী। ফলে আইনের কাছে প্রতিকার চাওয়া যায় না। নিরবে নিস্তব্দে সর্য্য করে নকল টাকা পাওয়ার সাথে সাথে ছিড়ে অথবা পুড়িয়ে ফেলতে হয়।

এ নকল টাকা প্রতিরোধে সরকার প্রতিবছর কোরবানী পশুর হাটে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার কাছে নকল টাকা পরীক্ষার জন্য মেশিন সরবরাহ দিয়ে থাকে। যাতে কোন বিক্রেতা ক্ষতির সম্মূখিত না হয়।

তাই এ বছরও কোরবানী পশুর হাটে পূর্বের ন্যায় নকল টাকা প্রতিরোধের জন্য মেশিন সরবরাহের জন্য আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার প্রতি পশু ব্যবসায়ীগণ আহবান জানান।






মন্তব্য চালু নেই