মেইন ম্যেনু

টেকনাফে সৌদি নাগরিক ও আরএসও নেতা সহ আটক- ৪

ফয়েজুল ইসলাম রানা, টেকনাফ: কক্সবাজারের টেকনাফ শামলাপুর থেকে এক সৌদি নাগরিক ও রোহিঙ্গা সলিডারিটি অর্গানাইজেন (আরএসও ) নেতা ও কক্সবাজার লিংকরোডস্থ ইমাম মুসলিম (রাঃ) ইসলামী সেন্টারের পরিচালক হাফেজ ছালাহুল ইসলামসহ চার জনকে আটক করেছে ২ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

শনিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে ১ টার দিকে শামলাপুর দারুল ইসলাম দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি ও শামলাপুর নতুন পাড়া এলাকার মৌ: ছৈয়দ করিমের নিজ বাড়িতে গোপন বৈঠককালে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করেন।ধৃত অপর তিনজন হচ্ছে সৌদি নাগরিক আবু ছালেহ আল গাদ্দানি, শামলাপুর দারুল ইসলাম দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি মকবুল আলীর পুত্র মৌ: ছৈয়দ করিম ও টাইঙ্গাইলের হাবলাবিল পাড়ার মৃত আবদুল হামিদের পুত্র মোঃ ইব্রাহিম।

বিজিবি ২ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্ণেল আবু জার আল জাহিদের নেতৃত্বে বিজিবি ও পুলিশ গোপন সংবাদ পেয়ে এ অভিযান পরিচালনা করেন।একটি সুত্রে জানা গেছে, মৌঃ ছৈয়দ করিম টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা জাফর আহমদের বেয়াই হন। ওই মাওঃ ছৈয়দ করিমের বাড়িতে দুই সৌদি নাগরিকসহ অন্যান্যদের সাথে গোপন বৈঠক হচ্ছিল।

তাছাড়া দুই সৌদি নাগরিকদের টেকনাফের শামলাপুর দারুল ইসলাম দাখিল মাদ্রাসা পরিদর্শনের কথা ছিল। ঘটনাস্থলে দুই জন সৌদি নাগরিক থাকলেও অপর এক সৌদী নাগরিকসহ কয়েকজন সহযোগী কৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে।

আটককৃতদের প্রাথমিক ভাবে জিঙ্গাসাবাদের জন্য টেকনাফ ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন সদরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার -৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদু রহমান বদি, টেকনাফ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আহমদ এবং সহকারি কমিশনার (ভূমি) জাহেদ ইকবাল।

আটককৃত বিদেশী নাগরিক থেকে একটি সৌদি আরবের পার্সপোর্ট পাওয়া গেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আটককৃতদের জিঙ্গাসাবাদের জন্য বিজিবি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।টেকনাফ মডেল থানার এসআই কাঞ্চন জানান, ধৃতদের বিজিবি হেফাজতে রাখা হয়েছে।

টেকনাফ ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের সিও আবুজার আল জাহিদ অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ধৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই