মেইন ম্যেনু

টেলিটককে গতিশীল করতে সহযোগিতা চাইলেন তারানা

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন টেলিকমিউনিকেশন প্রতিষ্ঠান টেলিটককে প্রমোট করতে সবার সহযোগিতা চেয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট তারানা হালিম বলেছেন, ‘টেলিটক আমাদের ফোন। প্রত্যেকের ভূমিকা আছে একে প্রমোট করার। শিক্ষাসহ প্রতিটি মন্ত্রণালয় যদি এর সঙ্গে চুক্তি করে তাদের সব কার্যক্রম অনলাইনের মাধ্যমে করেন তাহলে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন এ প্রতিষ্ঠানটি উন্নত ও গতিশীল হতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।’

মঙ্গলবার রাজধানীর ধানমন্ডি গভঃ বয়েজ হাইস্কুলে মাধ্যমিক স্কুলে অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তারানা হালিম বলেন, ২০১৭ সালে ৩৫০টি সরকারি এবং বেসরকারি স্কুলকে এ কার্যক্রমের অন্তর্ভুক্ত করতে চাই। ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীর সংখ্যা ১০ লাখে উন্নীত করা হবে।

তিনি বলেন, ২০১৮ সালের মধ্যে ১০ হাজার সরকারি-বেসরকারি বিদ্যালয়কে এর আওতাভুক্ত করতে সক্ষম হবো। সারাদেশে ৩৬ হাজার সরকারি-বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি প্রক্রিয়ার অন্তর্ভুক্ত করা ও ডায়নামিক ওয়েবসাইট চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে।

সরকারকে অনুরোধ জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, সরকার মেধাবীদের জন্য যেসব প্রোগ্রাম করেন তাতে টেলিটককে ব্যবহার করলে এতে টেলিটকের মান যেমন উন্নত হবে তেমনি রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি পাবে।

সবাইকে টেলিটকের সেবা গ্রহণের অনুরোধ জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, আমরা উন্নত সেবা দিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আপনারা সবাই এর সেবা গ্রহণ করবেন।

অভিভাবকদের অনুরোধ জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, একটি মেয়ে শিশুকে একটি পুরুষ শিশুর মতো দেখবেন। শিক্ষায় শিক্ষিত করবেন। কোনো ভেদাভেদ করবেন না। শান্তি মিশন, শিক্ষা ও কর্মক্ষেত্র সব জায়গায় মেয়েরা যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখছেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, টেলিটক বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই