মেইন ম্যেনু

টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে চান জয়

অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা বন্ধ করাসহ টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে দুর্নীতিমুক্ত করতে চান প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

তিনি বলেন, টেলিযোগযোগা মন্ত্রণলায়কে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে চাই। অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা বন্ধ করা আমাদের অন্যতম টার্গেট। এক্ষেত্রে আমাদের অগ্রগতি রয়েছে। তবে, আমার উদ্দেশ্য অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করা।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

তিনি বলেন, আমার উদ্দেশ্য দেশের জন্য ভালো কিছু করা। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলা আমার অনেক দিনেরই স্বপ্ন। আমি এই কথাটি সব জায়গায় বলি যে, ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং তথ্য-যোগাযোগ প্রযুক্তি পরস্পর পরিপূরক। তবে, তথ্যের যে সেবা মানুষকে দেব সেই সেবাটির রাস্তা হচ্ছে টেলিযোগাযোগ। আওয়ামী লীগের গত টার্মে আমারই পরামর্শ ছিল যে তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগ বিজ্ঞানবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে এনে টেলিযোগাযোগের সঙ্গে একত্র করতে হবে। কারণ এক সঙ্গে কাজ না করলে আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হবে না- যোগ করেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

তিনি বলেন, আমাদের অনেক কাজ হয়েছে। এখন আমি আশা করছি এবার যেহেতু দুই বিভাগ এক সঙ্গে আছে এখন আমাদের কাজ করতে আরো সুবিধা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, ‘দেশের মানুষের কাছে সেবা পৌঁছে দিতে চাই, টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার মাধ্যমে দেশের মানুষের জীবনমান উন্নত করতে চাই। এখন মোবাইল টেলিফোন কভারেজে আমরা একশ শতাংশে পৌঁছে গেছি, ইন্টারনেটের ক্ষেত্রে সেই জায়গায় পৌঁছাতে চাই।’

তিনি গণমাধ্যমের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, আপনাদের সহযোগিতা চাই। মনে রাখবেন আপনারা দেশের মানুষের জন্য পরিশ্রম করেন। দেশ এগিয়ে গেলে আমরা সবাই এগিয়ে যাব।

সজীব ওয়াজেদ জয়কে স্বাগত জানান ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। পরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন জয়। এসময় তাকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সার্বিক কর্মকাণ্ডের ওপর একটি চিত্র পাওয়ার পয়েন্ট এর মাধ্যমে দেখানো হয় এবং অবহিত করা হয়।

সভায় উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ ফয়জুর রহমান চৌধুরী, বিটিআরসির চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি বোষ, বিটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শওকত মোস্তফা, টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যবলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনোয়ার হোসেন প্রমুখ।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই