মেইন ম্যেনু

‘ট্যানারী মালিক ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানে অনিহার কারনেই ট্যানারী স্থানান্তরে দীর্ঘ্যসূত্রিতা’

টিপু সুলতান (রবিন), সাভার প্রতিনিধি: ট্যানারী মালিকদের কিছু সমস্যা ও অনিহা এবং ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের গাফিলতির কারনেই ট্যানারী স্থানান্তরে দীর্ঘ্যসূত্রিতা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খাঁন। বুধবার দুপুরে সাভারের হেমায়েতপুর হরিণধরা এলাকায় বাংলাদেশ বিসিক শিল্প নগরী ট্যানারির সিইটিপি পরিদর্শন শেষে ট্যানারি মালিকদের সাথে আলোচনাসভায় মন্ত্রী এ কথা বলেন।

আলোচনাসভায় উপস্থিত ট্যানারী মালিকরা ট্যানারি স্থানান্তর নিয়ে তাদের বিভিন্ন সমস্যা মন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন। এসময় মন্ত্রী তাদের সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দেন। এছাড়া ওই সভায় সিইটিপিতে কর্মরত কন্ট্রাকদের গাফিলতির বিষয়টি স্পষ্ট হলে মন্ত্রী বলেন, সরকার অস্ত্রধারী জঙ্গিদের মোকাবেলা করতে পারলে ট্যানারিতে কর্মরত কন্ট্রাকটারদেরও কঠোরভাবে মোকাবেলা করতে পারবে।

আলোচনাসভা শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে নৌ পরিবহন মন্ত্রী আগামী কোরবানি ঈদের আগেই রাজধানীর হাজারিবাগ থেকে সকল ট্যানারি সাভারে স্থানান্তরের জন্য মালিকদের আহবান জানান। পাশাপাশি ট্যানারি হসান্তরে অগ্রগতি না থাকায় মালিকদের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

এসময় তিনি আরও বলেন ট্যানারির জন্য নদীগুলো দুষণ হচ্ছে। ঢাকা শহরের মানুষ প্রানভরে নিশ্বাস নিতে কষ্ট পাচ্ছে। হাইকোর্টের নির্দেশে প্রতিদিন ট্যানারির মালিকদের যে দশ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হচ্ছে, এতে কারও চাপেই পিছপা হবেনা সরকার।

মন্ত্রীর কঠোর হুশিয়ারী মুখে ট্যানারী মালিকরা বলেন, আপনাদের পরিদর্শনের ফলে আমাদের কাজে গতি এসেছে। আগামী কোরবানীর মধ্যেই ২৫-৩০টি ট্যানারির বর্জ্য নিয়ে সিইটিপির কার্যক্রমকে বেগবান করা করা হবে।

তবে ট্যানারী মালিকদের এমন বক্তব্যের বিষয়ে খাদ্য মন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, আপনারা যেভাবে একের পর এক সময় বৃদ্ধি করছেন, এবং কাজের যে গতি দেখা যাচ্ছে তাতে কোরবানীর ঈদের মধ্যে আপনারা যে ৩০ ট্যানারি স্থানান্তর করবেন তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। যদি সকলের সম্মিলিত চেষ্টা অব্যাহত থাকে তাহলে হয়তো কাজের গতি কিছুটা বাড়তে পারে।

আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন ভুমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু, খাদ্য মন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, সংসদ সদস্য ডা: এনামুর রহমান, শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব মোশারফ হোসেন ভুইয়া।

ট্যানারী পরিদর্শনের সময় ও আলোচনা অনুষ্ঠানে সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা দৌলা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম রাজীব, ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমর, পল্লী বিদ্যুৎ, তিতাস গ্যাস, পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন ট্যানারির মালিকরা উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই