মেইন ম্যেনু

ট্রলার ডুবি: নিখোঁজ ১২ এখনও জেলে উদ্ধার হয়নি

ভোলা চরফ্যাশনের ঢালচরের আঃ রহিম মাঝির মহিপুর সাগরে ডুবে যাওয়া ট্রলারের ২ জেলেকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও ১২ জেলেসহ ট্রলারটি এখনো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। জেলেদের ভাগ্যে কি ঘটেছে তাও জানা যায়নি। জেলেদের উদ্ধারে ট্রলার মালিক আঃ রহিম মাঝির কোন তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়নি। নিখোঁজ জেলেদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত আড়াইটায় কলাপাড়া থানার মহিপুর সাগর মোহনায় ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পরে ট্রলারটি ডুবে যায় বলে জানিয়েছেন ট্রলার মালিক আঃ রহিম মাঝি।জানা যায়, ঢালচরের আঃ রহিম মাঝির মাছ ধরা ট্রলারটি ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়ে ১৪জন জেলে সহ মহিপুরের সাগর মোহনায় ডুবে যায়। ট্রলার ডুবির ৩২ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও (সকাল সাড়ে ১০টা) নিখোঁজ ১২ জেলেকে এখনো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। নিখোঁজ ১২ জেলে হচ্ছে- মোফাজ্জল, আলমগীর, দেলোয়ার, শাহাবুদ্দিন, ওয়াহাব আলী, মরন মিয়া, আবুল কালাম, রাকিব, আঃ মান্নান, লোকমান, নুরু মিস্ত্রী ও ইমন। রবিবার বিকেলে এই ট্রলারের ২ জেলেকে উদ্ধার করা হয়েছে। তারা হচ্ছে আব্দুল আলী মাঝি (৫০) ও বাবুর্চি শাহাজাহান (২৮)। নিখোঁজ জেলেদের বাড়ী চরফ্যাশনের চর মানিকা ও উত্তর আইচা এলাকা বলে জানা গেছে। ঢালচর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই আনোয়ার হোসেন জানান, ঘটনাস্থল কলাপাড়া থানা এলাকায় হওয়ায় আমাদের পক্ষে উদ্ধার তৎপরতা চালানো সম্ভব নয়।এদিকে চরমানিকা কোষ্টগার্ড কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মোশারেফ হোসেন জানান, ডুবে যাওয়া ট্রলার ও নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারের জন্য মহিপুর এলাকায় যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই