মেইন ম্যেনু

ট্রাইব্যুনালের রায় ফাঁসের মামলায় সাকা পরিবারের বিচার শুরু

ট্রাইব্যুনালের রায় ফাঁসের মামলায় ফাঁসি কার্যকর হওয়া সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর স্ত্রী, পুত্র ও আইনজীবীসহ সাত আসামির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করেছে ট্রাইব্যুনাল। এর মাধ্যমে মামলাটির বিচারকাজ শুরু হলো।

সোমবার সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনাল বিচারক কেএম শাসমুল আলম এ চার্জগঠনের আদেশ দেন।

একই সঙ্গে আসামিদের অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে আগামী ২৮ মার্চ সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ঠিক করেছেন।

এদিকে সোমবার মামলার আসামি সাকা চৌধুরীর ম্যানেজার একেএম মাহবুবুল আহসানের জামিনের আবেদন করা হলে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

চার্জগঠনকৃত আসামিরা হলেন, সাকা চৌধুরীর স্ত্রী ফারহাদ কাদের চৌধুরী, ছেলে ছেলে হুমাম কাদের চৌধুরী, আইনজীবী ব্যারিস্টার একেএম ফখরুল ইসলাম, মেহেদী হাসান ও ম্যানেজার মাহবুবুল আহসান, ট্রাইব্যুনালের কর্মচারী ফারুক আহমেদ ও নয়ন আলী।

শুনানিকালে মামলাটিতে কারাগারে থাকা আসামি ফারুক আহমেদ, মাহবুবুল আহসান ও নয়ন আলীকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। অন্যদিকে জামিনে থাকা অপর আসামিরা আদালতে উপস্থিত হন। আসামি মেহেদী হাসান পলাতক রয়েছেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে ওই মামলায় ২০১৪ সালের ২৮ আগস্ট আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন গোয়েন্দা পুলিশ ডিবির ইন্সপেক্টর মো. শাহজাহান।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ২০১৩ সালের ১ অক্টোবর বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদেরকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১। তবে রায় ঘোষণার আগেই সাকা চৌধুরীর স্ত্রী ও তার পরিবারের সদস্য এবং আইনজীবীরা রায় ফাঁসের অভিযোগ তোলেন। তারা ‘রায়ের খসড়া কপি’ সংবাদকর্মীদের দেখান। ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রার একেএম নাসির উদ্দিন মাহমুদ বাদী হয়ে ওই বছর ২ অক্টোবর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে শাহবাগ থানায় একটি মামলা করেন।






মন্তব্য চালু নেই