মেইন ম্যেনু

ট্রাভেল এজেন্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চান?

আপনি যদি ভ্রমণ প্রিয় হন তাহলে একজন ট্রাভেল এজেন্ট হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার গড়ার কথা ভাবতে পারেন সানন্দ্যে। একজন ট্রাভেল এজেন্ট ভ্রমণ বিষয়ে পরামর্শ দেন, ট্রাভেল প্যাকেজ তৈরী করেন, কোথায় কোন সময় বেড়ানো যায় ও কেমন খরচ এসব বিষয়ে খোঁজ খবর রাখেন, রিজার্ভেশন এবং ভিসার ব্যবস্থা করেন। এখন মানুষ অনেক বেড়াতে পছন্দ করেন। আগের তুলনায় পারিবারিক ট্যুর, বন্ধুদের সাথে বেড়ানো এমনকি একা ঘুরতে যাওয়া মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। এদের সবারই প্রয়োজন পড়ে একজন ট্রাভেল এজেন্টকে। আপনার বুদ্ধিমত্তা এবং শ্রম দিয়ে পেশাটিকে আরও চমকপ্রদ অবস্থায় নিতে পারেন আপনি নিজেই।

একাডেমিক যোগ্যতা
একজন ট্রাভেল এজেন্ট হতে হলে অবশ্যই আপনাকে শিক্ষিত হতে হবে। চাকরীর বাজার এখন খুব খারাপ। পোস্ট কম, প্রার্থী অনেক। তাই পড়াশোনা, ভাল রেজাল্ট, আপনার সার্টিফিকেট আপনাকে এগিয়ে রাখবে।

ট্রাভেল প্লানিং কোর্স
এখন বিভিন্ন জায়গায় ট্রাভেল প্লানিং কোর্স চালু আছে। এখানে রিজার্ভেশন সিস্টেম, ট্রাভেলের নিয়মকানুন (দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক), মার্কেটিং এই সব বিষয়ে জানতে পারবেন। এটি আপনার চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে একটি বাড়তি সুবিধা হিসেবে যোগ হবে। অনলাইনেও অনেক ট্রেইনিং কোর্স পাবেন, যা আপনাকে সহযোগিতা করবে। কিছু প্রোগ্রামে ইন্টার্নশিপের ব্যবস্থাও থাকে!

জ্ঞান বাড়ান
ভাষা শিখুন। জনপ্রিয় অন্তত ২ টি ভাষা জানা থাকলে এটি আপনার অনেক কাজে দেবে। চাকরির জন্য তো বটেই, নিজস্ব ট্রাভেল এজেন্সি খুলতে চাইলে এই ভাষাজ্ঞান আপনাকে অনেক সাহায্য করবে।

দক্ষতা বাড়ান
একজন ট্রাভেল এজেন্টকে অবশ্যই আত্মবিশ্বাসী, পরিশ্রমী হতে হবে। আপনাকে আপনার ক্লায়েন্টকে আশ্বস্ত করতে পারতে হবে যে আপনিই সবচেয়ে ভাল ট্যুর প্ল্যান দিচ্ছেন, সবচেয়ে কম খরচে কিন্তু সবচেয়ে বেশী সুবিধার সাথে। আপনার যোগাযোগ ও অনেক ভাল হতে হবে। কারণ ডেস্কে বসেই বেশিরভাগ কাজ যেমন ইমেইল করা, ফোনে যোগাযোগ করা, খোঁজ নেওয়া এসব করতে হবে আপনাকে।

গ্রাহকের চাহিদা
প্রত্যেক গ্রাহকের আলাদা আলাদা চাহিদা থাকবে। এটাই স্বাভাবিক। যার যার কাজ, ছুটি অনুযায়ী সে তার ভ্রমণ সাজাতে চাইবে এবং সেই সময়ের সবচেয়ে ভাল অফারটি চাইবে। আপনাকে সেই অনুযায়ী প্রস্তুতি রাখতে হবে।

সংযোগ তৈরি করুন
আপনাকে গ্রাহককে কমিশন দিতে হবে। তাই অনেকের সাথে ভাল সম্পর্ক রাখতে হবে। বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ তো বাড়াবেনই, সাথে তাদের মাধ্যমে এমন যোগাযোগ বাড়ানোর চেষ্টা করবেন যা আপনার কাজে লাগে।

ভ্রমণ করুন
সব জ্ঞান তো আর ফোনে বা ইন্টারনেটে নেওয়া যাবে না। আপনিও ভ্রমণ করুন। আপনি নিজে যদি ভ্রমণপ্রিয় হন, তাহলে সহজেই এই পেশাকে বুঝতে পারবেন। চাক্ষুষ ভ্রমণ আপনার জ্ঞান বাড়াবে, বিভিন্ন এলাকায় আপনাকে পরিচিত করবে, সেসব এলাকার সুবিধা অসুবিধা আপনি নিজেই জানতে পারবেন। কোন ৩য় পক্কের সাহায্য নিতে হবে না আপনাকে।

শুরু করুন
ক্যারিয়ারের শুরুতেই ভাল পজিশন নাও পেতে পারেন আপনি। অনেকে রিসেপশনিস্ট হিসেবে ট্রাভেল এজেন্সিতে চাকরি শুরু করেন। ধীরে ধীরে ভাল অবস্থানে আসেন। এমনকি পরে নিজে একটা ট্রাভেল এজেন্সি খুলে ফেলেন। তাই আগে শুরু করুন।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই