মেইন ম্যেনু

ট্রাম্পকে শুদ্ধ করতে আসাম থেকে গেল চায়ের চালান!

যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য আসামের চা বাগান থেকে সংরক্ষিত ৬ হাজার ব্যাগ সবুজ চা পাঠানো হয়েছে। সঙ্গে একটি চিঠি। যাতে লেখা রয়েছে, ‘এই তাজা চা পান করে নিজের বর্ণবাদী মনকে বিশুদ্ধ করুন।’

মঙ্গলবার কলকাতাভিত্তিক টি-এ-মি নামের এক চা কোম্পানি নিউইয়র্কে ট্রাম্পের ঠিকানায় ওই চায়ের চালান পাঠিয়েছে। এর সঙ্গে একটি চিঠিও রয়েছে। যাতে লেখা রয়েছে: ‘জনাব ট্রাম্প, ভারতবাসীর পক্ষ থেকে নমষ্কার। আমরা আপনাকে প্রচুর পরিমাণ সবুজ প্রাকৃতিক চা পাঠালাম। এই চা আপনার ক্ষতিকর চরমপন্থি ধ্যান ধারণা বিনাশে সহায়তা করবে। এটি পান করলে আপনার দেহ মন পরিশুদ্ধ হয়ে ওঠবে। পাশাপাশি এটি আপনার স্বাস্থ্যের ভারসাম্য রক্ষা করতেও সাহায্য করবে। পৃথিবী ও আমেরিকার দোহাই, আপনি এই চা পান করুন এবং বিশুব্ধ হয়ে উঠুন।’

এ সম্পর্কে বুধবার ওই কোম্পানির এক কর্মকর্তা স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেছে,‘ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে গোটা বিশ্ব উদ্বিগ্ন। আমরা তাকে থামাতে পারছি না। কিন্তু আমরা চাই তার মানসিকতার পরিবর্তন হউক। আমাদের ধারণা সবুজ চা তাকে বিশুদ্ধ হতে সাহায্য করবে। আর এমনটি হলে গোটা পৃথিবী উপকৃত হবে।’ প্রয়োজনে তারা আরো চা পাঠানো হবে বলেও জানিয়েছে ওই কোম্পানি। যদিও ওই ৬ হাজার ব্যাগ চায়ে ট্রাম্পের চার বছর চলে যাবে। কেননা মার্কিন ওই ধনকুবের দিনে মাত্র তিন কাপ চা পান করে থাকেন।

উল্লেখ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দল থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু শুরু থেকেই বর্ণবাদী বক্তব্যের কারণে বেশ সমালোচিত হয়ে আসছেন তিনি। বিশেষ করে মুসলিম অভিবাসী এবং উগ্রবাদের সঙ্গে মুসলিম সম্প্রদায়কে জড়িয়ে তার বক্তব্যগুলো যুক্তরাষ্ট্রেও বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে। অভিবাসীদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানের কারণে দেশটিতে অবস্থানরত এশীয়রা বেশ আতঙ্কেই আছেন।

তবে মুসলিম বিদ্বেষের কারণে ভারতের উগ্রবাদী হিন্দুরে কাছে প্রায় অবতারের আসনে বসেছেন ট্রাম্প। সপ্তাহখানেক আগে একদল কট্টর হিন্দু তাকে পূজা করছে এমন দৃশ্য পত্রিকায় বেরিয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই