মেইন ম্যেনু

ট্রাম্পের চেয়ে ৫ পয়েন্ট এগিয়ে হিলারি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটারসমর্থনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে ৫ পয়েন্ট এগিয়ে হিলারি ক্লিনটন।

ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি ও রিপাবলিকান পার্টির প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ট্রাম্পের মধ্যকার সোমবারের বিতর্কের পর হিলারির প্রতি সমর্থন কিছুটা বেড়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও জরিপ সংস্থা ইপসোস পরিচালিত মতামত জরিপে দেখা যাচ্ছে, হিলারি প্রতি ভোটার সমর্থন এখন ৪৩ শতাংশ, যেখানে ট্রাম্পের দিকে রয়েছে ৩৮ শতাংশ। স্পষ্ট ব্যবধানে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে আছেন হিলারি।

এ জরিপের ফলে বলা হয়েছে, উভয় প্রার্থীর কাউকে এখনো সমর্থন করেন না- এমন ভোটার রয়েছে ১৯ শতাংশ। এদের দোদুল্যমান ভোটার বলা হয়। নির্বাচনে এসব ভোটাররা মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন।

রয়টার্স-ইপসোসের জরিপের ফলাফল প্রকাশিত হয় শুক্রবার। ২৩-২৯ সেপ্টেম্বর এ জরিপ পরিচালিত হয়।

এ বছর পরিচালিত সব জরিপেই এগিয়ে আছেন হিলারি। গত চার সপ্তাহে পরিচালিত জরিপগুলোতে দেখা গেছে, ট্রাম্পের চেয়ে ৪-৫ শতাংশ ভোটারসমর্থন বেশি রয়েছে হিলারির দিকে।

প্রধান দুই দলসহ বিকল্প দলগুলোর প্রার্থীদের নিয়ে পরিচালিত জরিপে দেখা যাচ্ছে, ট্রাম্পের চেয়ে হিলারি এগিয়ে আছেন ৪ শতাংশ সমর্থন বেশি নিয়ে। এ ক্ষেত্রে হিলারি ৪২ শতাংশ, ট্রাম্প ৩৮ শতাংশ, লিবার্টিয়ান পার্টির প্রার্থী গ্যারি জনসন ৭ শতাংশ এবং গ্রিন পার্টির প্রার্থী জিল স্টেইন ৩ শতাংশ ভোটার সমর্থন পাচ্ছেন।

হিলারি-ট্রাম্পের বিতর্ক দেখেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ১০ কোটি মানুষ। তবে রয়টার্স বলছে, এ সংখ্যা ৮ কোটি ৪০ লাখ। প্রাপ্তবয়স্ক দর্শকদের মধ্যে ৫৬ শতাংশ বলেছেন, এ বিতর্কে হিলারি জয়ী হয়েছেন। দুই প্রার্থী বিতর্কমঞ্চে ছিলেন ৯০ মিনিট।

রয়টার্স-ইপসোস যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি রাজ্যে ২ হাজার ৫০১ জন ভোটারের ওপর এ জরিপ চালিয়েছে। তাদের মতে, জরিপের ফল প্রকৃত অবস্থার চেয়ে ২ শতাংশ কম-বেশি হতে পারে।






মন্তব্য চালু নেই