মেইন ম্যেনু

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে শতাধিক নারীর নগ্ন প্রতিবাদ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান পার্টির প্রেসিডেন্ট পদপার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নগ্ন হয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন শতাধিক নারী। ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে প্রবেশের যোগ্য নন এমন দাবি তুলে ওই নারীরা এই অভিনব প্রতিবাদ করেন। স্থানীয় সময় সোমবার আমেরিকার ক্লিভল্যান্ডে এই ঘটনা ঘটে।

প্রতিবাদে ওই নারীরা অভিযোগ তোলেন, ট্রাম্প মানুষে মানুষে বিভেদ তৈরি করছেন। কখনো মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের আমেরিকায় প্রবেশ নিষিদ্ধ করার কথা তো কখনো মেক্সিকো সীমান্তে অনুপ্রবেশ রুখতে দেওয়াল তোলার কথা বলেছেন। সাহসী ওই নারীদের হাতের পোস্টারে লেখা ছিল, ‘আমেরিকার দরকার ঐক্য, বিভেদ সৃষ্টিকারী ট্রাম্পকে নয়।‘

রয়টার্স জানায়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের নাম আজই আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করবে রিপাবলিকান দল। আর ক্লিভল্যান্ডে হবে সেই অনুষ্ঠান। তার আগে ওই মঞ্চের সামনেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিনব প্রতিবাদে শামিল হলেন ১৩০ জন নারী। সম্পূর্ণ নগ্ন ফোটোশুটের মাধ্যমে তাঁরা এই প্রতিবাদ করেন। স্পেনসার টিউনিক নামের এক চিত্রগ্রাহকের একটি ফোটোশুটে অংশ নিয়েছিলেন তাঁরা। প্রত্যেকের হাতে ছিল আয়না। যার মুখ ঘোরানো ছিল অনুষ্ঠানমঞ্চের দিকেই।

এই ফোটোশুটে যোগ দেওয়া অধ্যাপক ও শিল্পী মাপো কিনর্ড বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পকে কখনই ভোট দেবেন না। তাই এই অভিনব প্রতিবাদে অংশ নিয়েছেন।

এই অভিনব প্রতিবাদের উদ্যোক্তা চিত্রগ্রাহক স্পেন্সার টিউনিক বলেন, ১৩০ জন নারী আজ ফটোসেশনে অংশ নিয়েছেন। নির্বাচিত ১০০ জনের ছবি প্রকাশিত হবে আগামী ৮ নভেম্বর, প্রেসিডেন্ট পদের চূড়ান্ত নির্বাচনের ঠিক আগে। ট্রাম্পের নির্বুদ্ধিতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেই ক্যামেরা হাতে পথে নেমেছেন বলে জানান টিউনিক।






মন্তব্য চালু নেই