মেইন ম্যেনু

ট্রেনে গেলে লাল টুকটুকে গোলাপ দেবেন সেবিকা

বিমানসেবিকাদের সেবা যত্ন পেয়ে অনেকেই অভ্যস্ত। কিন্তু ধরুন, ট্রেনে সফরের সময় দেখলেন এক ট্রেনসেবিকা লাল টুকটুকে গোলাপ ফুল হাতে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছেন। পেছনে বাজছে মিষ্টি গানের সুর। অবাক লাগছে? হ্যাঁ, এমন ঘটনাই সত্যি হতে চলেছে কয়েকদিনের মধ্যে।

দিল্লি-আগ্রা গতিমান এক্সপ্রেসে এই পরিষেবা চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলমন্ত্রণালয়। সামনের মাসে এই ট্রেন চালু হলে ভারতে এই প্রথম ঘণ্টায় ১৬০ কিলোমিটার বেগে কোনো ট্রেন ছুটবে। নতুন এই ট্রেন চালু হওয়ার আগে ২৫ ফেব্রুয়ারি রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভূ প্রথম এই সেমি হাইস্পিড ট্রেনের বিশেষ কিছু পরিষেবার কথা ঘোষণা করবেন।

দিল্লি-আগ্রা গতিমান এক্সপ্রেসে থাকবে উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন ব্রেকিং সিস্টেম, অটোমেটিক ফায়ার আলার্ম ও জিপিএস চালিত প্যাসেঞ্জার

ইনফরমেশন সিস্টেম। খবর ও বিনোদনের জন্য থাকবে লাইভ টিভির পরিষেবা। ট্রেনের তিনটি কোচের দরজা হবে স্লাইডিং।

রেলের এক শীর্ষ কর্তা জানিয়েছেন, আমরা গতিমান এক্সপ্রেসে বিমান পরিষেবার মতো যাবতীয় আধুনিক পরিষেবা দেয়ার চেষ্টা করছি। ট্রেনে থাকবেন ট্রেন সেবিকা ও ট্রেনের খাবারের মানও হবে বিমানের মতো। থাকবে ভারতীয় ও কন্টিনেন্টাল খাবারের ব্যবস্থা।

গতিমান এক্সপ্রেসের ভাড়া হবে শতাব্দী এক্সপ্রেসের ২৫ গুণ বেশি। AC চেয়ারকারে ভাড়া ৬৯০টাকা ও এক্সিকিউটিভ ক্লাসে খরচ পড়বে ১,৩৬৫টাকা। দিল্লি-আগ্রা ছাড়াও কানপুর-দিল্লি, হায়দরাবাদ-চেন্নাই, চণ্ডীগড়-দীল্লি, নাগপুর-বিলাসপুর, গোয়া-মুম্বই ও নাগপুর-সেকেন্দ্রাবাদসহ ৯টি রুটে এই ট্রেন চলবে বলে জানায় রেলমন্ত্রী।






মন্তব্য চালু নেই