মেইন ম্যেনু

ঠাকুরগাঁওয়ে শিক্ষকের বাসায় অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগ

শরিফুল ইসলাম, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকইব্রাহিম খলিলের বাড়িতে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে এ অভিযোগে শিক্ষকের বাড়ি ঘেরাও করে এলাকাবাসী।অভিযুক্ত শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল হাজীপাড়া এলাকার মৃত হাবিবোর রহমানের ছেলে এবং তিনি সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক।

এলাকাবাসী জানায়, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল হাজীপাড়াস্থ নিজ বাসায় আন্নী আক্তার নিপু(১৮) নামে একটি মেয়েকে নিয়ে আসেন এবং সেখানে দীর্ঘক্ষণ সময় ক্ষেপন করেন। পরে ৯টার দিকে মেয়ের মা আজিমা খাতুন তাঁর মেয়েকে খুজতে শিক্ষকের বাড়ীতে আসে এবং মেয়েকে দেখতে পায়।

পরে মেয়ের মা চিকৎকার করলে শিক্ষক খলিল বাড়ীর পিছন গেট দিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় আসপাশের মানুষ এসে ভিড় জমায়। পরেএলাকাবাসী ওই শিক্ষকের বাড়ী ঘেরাও করে । খবর পেয়ে ঠাকুরগাঁও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে এবং বিষয়টি ধামাচাপা দেয় বলে অভিযোগ করে এলাকাবাসী।মেয়ের মা আজিমা খাতুন বলেন, আমার মেয়ে শিক্ষকের বাসায় ছিল, আমি নিজেই দেখেছি।

কিন্তু শিক্ষক বলছে তাঁর বাসায় কোন মেয়ে নেই। এখন পুলিশ আমাকে বলছে থানায় অভিযোগ করতে ,তাই থানায় আমি অভিযোগ করবো।এলাকাবাসী আলমগীর বলেন, শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল বাড়ির বাইরে খালি পায়ে ঘোরাফেরা করছিল এবং তাঁর বাড়িতে প্রায় সময় খারাপ মেয়েদেরকে আসাযাওয়া করতে দেখা যায়।

সাইফুল নামে অপর এক এলাকাবাসী বলেন, এই শিক্ষক দীর্ঘদিন থেকে তাঁর বাড়িতে অসামাজিক কার্যকলাপ করে আসছে। এতে করে এলাকার যেমন বদনাম হচ্ছে। ঠিক তেমনি শিক্ষক সমাজের মান সম্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে।শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল বিষয়টি অস্বীকার করেন।






মন্তব্য চালু নেই