মেইন ম্যেনু

ডাক্তার শফিক হত্যায় ২ জনের মৃত্যুদণ্ড

যশোরে চিকিৎসক শফিকুল ইসলাম শফিক হত্যা মামলায় দুই আসামির বিরুদ্ধে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে স্পেশাল ট্রাইব্যুনালের বিচারক নিতাই চন্দ্র সাহা চাঞ্চল্যকর এই মামলাটির রায় ঘোষণা করেন। সংশ্লিষ্ট আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) বদরুজ্জামান পলাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- যশোর শহরের ঘোপ নওয়াপাড়া এলাকার রজব আলীর ছেলে আশিকুর রহমান বাবলু (৪০) ও একই এলাকার মিরাতুল হকের ছেলে সাইফুল ইসলাম জাকির (৩৬)। এরমধ্যে বাবলু পলাতক রয়েছেন। মামলার অন্য দুই আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস দেওয়া হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৯ সালের ২৯ জুলাই যশোর শহরের জেস ক্লিনিকে কর্মরত ছিলেন এর মালিক ডা. শফিকুল ইসলাম শফিক। এসময় দণ্ডপ্রাপ্তরা তাকে কুপিয়ে জখম করে। পরে উপস্থিত লোকজন তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। কিন্তু তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় রেফার করা হয়। পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় পরদিন ৩০ জুলাই ডা. শফিকের বাবা আব্দুস সালাম ধাবক বাদী হয়ে ৪ জনের বিরুদ্ধে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। মামলা নং ১২৯/৩০.০৭.০৯। মামলার তদন্ত শেষে ২০১০ সালের ২৬ মার্চ কোতোয়ালি থানার তৎকালীন এসআই অপূর্ব হাসান তদন্ত শেষে আশিকুর রহমান বাবলু, সাইফুল ইসলাম ওরফে জাকির হোসেন, নতুন উপশহর এলাকার রউফ মিয়ার ছেলে রাব্বি ওরফে মোরসালিন এবং ঘোপ নওয়াপাড়া রোড এলাকার আবদুর রহিমের ছেলে রায়হানকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

যশোরের স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলার বিচার কাজ শেষে বিচারক নিতাই চন্দ্র সাহা আসামি বাবলু ও জাকিরকে ফাঁসি এবং অপর দুই আসামিকে বেকসুর খালাস দেন।

এদিকে রায় ঘোষণার পর ডা. শফিকের বাবা মামলার বাদী আব্দুস সালাম ধাবক সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই