মেইন ম্যেনু

ডাক বিভাগ পাল্লা দেবে কুরিয়ার সার্ভিসের সঙ্গে!

বাংলাদেশ ডাক বিভাগকে আধুনিক ও শক্তিশালী করতে ৭৮ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। বেসরকারি কুরিয়ার সার্ভিসগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নামতে এই উদ্যোগ সরকারের।

প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, ‘ডাক পরিবহন ব্যবস্থা শক্তিশালীকরণ’ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ডাক বিভাগের ডাক পরিবহন ও বিতরণ ব্যবস্থার আধুনিকায়নের মাধ্যমে দেশের সব জেলা উপজেলায় পার্সেল, লজিস্টিক সার্ভিস, ডাক, ক্যাশ, বিভিন্ন ধরনের স্ট্যাম্প দ্রুত পৌঁচ্ছানো সম্ভব হবে। এতে করে বেসরকারি কুরিয়ার সার্ভিসগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতামূলক সেবা প্রদানে সক্ষমতা অর্জন করবে ঐতিহ্যবাহী ডাক বিভাগ।

ডাক অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ডাক বিভাগের নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা না থাকায় বেসরকারি পরিবহনে ডাক পরিবহন করতে হচ্ছে। পাশপাশি রেল ও স্টিমারের ওপর নির্ভরশীল হওয়ায় ডাক বিভাগ গতিহীন হচ্ছে।

অপরদিকে কুরিয়ার সার্ভিসগুলো সড়ক পথে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থার মাধ্যমে বাজার দখল করে আছে। কিন্তু নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা না থাকায় পার্সেল ও লজিস্টিক সার্ভিস পরিবহন করতে না পারায় প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ছে ডাক বিভাগ। নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা শক্তিশালী ও আধুনিক করে গ্রামীণ জনগণের সঙ্গে শহরের মধ্যে পণ্য পরিবহন সহজ করার জন্য এ প্রকল্পটি হাতে হাতে নেয়া হয়েছে।

পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন বিভাগের সদস্য আরস্তু খান বলেন, ‘প্রকল্পটির সম্পর্কে পিইসি সভায় আলোচনা করা হয়েছে। সব দিক বিবেচেনা করে ডাক বিভাগের উন্নয়নের জন্য প্রকল্পটি চূড়ান্ত করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার একনেক সভায় প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদনের পেশ করা হবে।’

পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে জানা গেছে, সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নের ৭৭ কোটি ৩৩ লাখ টাকার ‘ডাক পরিবহন ব্যবস্থা শক্তিশালীকরণ’ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে বাংলাদেশ ডাক বিভাগ। প্রকল্পটি জুলাই ২০১৫ থেকে জুন ২০১৭ মেয়াদকালে বাস্তবায়ন হবে।

প্রকল্পটির আওতায় মোট ১১৮টি গাড়ি কেনা হবে। এর মধ্যে দেড় টনের ক্যাশ ওয়াগন ৩৫টি, এক টনের ওপেন বডি পিক-আপ ভ্যান ৯টি, এক টনের কাভার্ড ব্যান ১০টি, দেড় টনের কাভার্ড ভ্যান ২০টি, তিন টনের কভার্ড ভ্যান ৩০টি, পাঁচ টনের কভার্ড ভ্যান ১১টি, সাত টনের কাভার্ড ভ্যান ৩টি। এছাড়া গাড়িগুলো রাখা ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ৩৩টি গ্যারেজ নির্মাণ করা হবে।

প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ডাক বিভাগের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ আর্থিক সেবাগুলো শক্তিশালী হবে এবং রাজস্ব আয় বৃদ্ধি পাবে বলে ডাক বিভাগ আশা করছে।






মন্তব্য চালু নেই