মেইন ম্যেনু

ডিম অন্যতম শ্রেষ্ঠ খাবার হওয়ার কারণ

সহজলভ্য পুষ্টির উত্স হিসেবে ডিমের তুলনা কেবল ডিমই হতে পারে। তাই বাড়িতে বা রেস্তোরাঁয় সকাল-বিকেলের নাশতাতেই হোক কিংবা দুপুর-রাতের খাবারে ডিমের একটা মেন্যু ঘুরেফিরে যেন আসবেই। আর ব্যাচেলরদের জীবনে সহজে রান্নার সহজ মেন্যু হিসেবে ডিম তো প্রায় ‘জাতীয় খাদ্য’ই বটে! মানুষের দেহের পুষ্টির চাহিদা পূরণ করতে ডিমরে দ্বিতীয় আর নেই বললেই চলে। অবশ্য ডিম পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ খাবার হওয়ার কারণও রয়েছে।

কি কি আছে ডিমে:

* প্রায় সব ধরনের প্রয়োজনীয় পদার্থ রয়েছে ডিমের ভেতর। আর এ কারণে ডিমকে বলা হয় পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ পুষ্টিকর খাবার।
* ডিমে প্রায় ১১ ধরনের ভিটামিন, প্রচুর আমিষ ও খনিজ পদার্থ রয়েছে।
* একটি ডিমে রয়েছে প্রায় ৫ গ্রাম চর্বি, যার পুরোটাই কুসুমে। তবে ক্ষতিকর চর্বিও আছে, যার পরিমাণ দেড় গ্রামের মতো।
* পুষ্টির উৎসের ভেতর ডিমের অবস্থান সবার উপরে বললেই চলে। কারণ ডিমের ভেতর বিদ্যমন আমিষ সহজপ্রাপ্য এবং খুবই উপকারী।
* পুষ্টিগতভাবে ডিম প্রোটিন ও কোলিনের উৎকৃষ্ট উৎস।
* অস্ট্রেলিয়ার ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন এক গবেষণায় জানিয়েছে, যারা সুষম খাদ্যাভ্যাসে অভ্যস্ত, তাদের প্রতিসপ্তাহে ৬টি ডিম খেতে কোনো ক্ষতি নেই।






মন্তব্য চালু নেই