মেইন ম্যেনু

ড্রেনেজ সিস্টেমই আশা দেখাচ্ছে খেলা শুরুর

প্রকৃতির খামখেয়ালিপনা কখন শুরু হয়, কেউ বলতে পারে না। এশিয়া কাপের ফাইনাল শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। অথচ, তার ঘণ্টা খানেক আগে শুরু হয়েছে আগাম কালবৈশাখী। তুমুল ঝড় আর মুষলধারে বৃষ্টির তোড়ে ভেসে গিয়েছে পুরো মিরপুর। শের-ই বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উইকেট কোনমতে কভার দিয়ে ঢেকে ফেলা হলেও আউটফিল্ড ছিল পুরোপুরি উন্মুক্ত। ফলে আউটফিল্ডে প্রচুর পরিমাণে পানি জমে যায়।

সন্ধ্যা ৭.৪০টায় বৃষ্টি পুরোপুরি থেমে যায়। এরপরই নতুন করে জাগে খেলা শুরুর প্রত্যাশা। গ্রাউন্সম্যানরা মাঠে কাজ শুরু করে দিয়েছে। উইকেটের কভার সরিয়ে ফেলা হয়েছে। আউটফিল্ডের পানি নিষ্কাশন করে ফেলতে পারলেই খেলা শুরু করা সম্ভব হবে।

তবে, যে পরিমাণ বৃষ্টি হয়েছে- তাতে সাধারণত একটা মাঠকে খেলার জন্য প্রস্তুত করে তুলতে বেশ সময় লেগে যাওয়ার কথা; কিন্তু মিরপুরের হোম অব ক্রিকেটের সবুজ মাঠটাকে তৈরী করা হয়েছে খুবই উন্নত প্রযুক্তি দিয়ে তৈরী। ড্রেনেজ ব্যবস্থা বিশ্বমানের। বৃষ্টি থামার কিছুক্ষণের মধ্যেই পানি সরিয়ে ফেলা সম্ভব হয়েছে।

কভার থাকার কারণে উইকেট শুকনো রাখা সম্ভব হয়েছে। তবে, পুরো মাঠ ভেজা। সুতরাং, কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতেই হচ্ছে দর্শকদের। তবে, মিরপুরের ড্রেনেজ ব্যবস্থা উন্নত হওয়ার কারণেই আশা জেগেছে, খেলা শুরু করা নিয়ে।






মন্তব্য চালু নেই