মেইন ম্যেনু

ড. আতিউর, জবাব চাই

সাংবাদিক মনজুরুল আহসান বুলবুল কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমানের কাছে কয়েকটি প্রশ্ন করেছেন তার ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে। স্ট্যাটাসটি হু্বহু বাংলাদেশ প্রতিদিনের পাঠকদের জন্য তুলো ধরা হলো।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোয় এই মূহূর্তে আপনার সামনে অনেক প্রশ্ন। এসবের সাথে কিছু প্রশ্ন যোগ করতেই চাই। ‘প্রশ্ন গুলো সহজ, উত্তরও তো জানা —‘

১. অর্থনীতির মত কঠিন বিদ্যার চর্চা করেও আপনি রবীন্দ্রনাথ পড়েন কেন? কথায় কথায় আপনার মাথায় রবীন্দ্র নাথ কেন?

২. বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বই লিখেছেন কেন?

৩. মুক্তিযাদ্ধা আর মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আপনার এত ভাবনা কেন?

৪. মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের বিশাল নতুন ভবন নির্মানে সবগুলো ব্যাংক যাতে বড় অংকের সহায়তার হাত বাড়ায় সে জন্য আপনি এত উদ্যোগ নিয়েছেন কেন?

৫. বিধবা পল্লীর বিধবারা যাতে ভালো থাকে সে জন্য আপনি সোহাগপুর ছুটে গিয়েছিলেন কেন?

৬. মহিলা উদ্যোক্তাদের জন্য জামানত ছাড়াই ব্যাংক সহায়তা দেয়ার সাহস দেখিয়েছিলেন কেন?

৭. দেশে এত যোগ্য লোক থাকতে আপনি এত পুরস্কার আর বিদেশে এত দাওয়াত পান কেন?

৮. অর্থনীতির মত কঠিন বিষয় নিয়ে আপনি সহজ ভাবে বলতে বা লিখতে পারেন কেন?

৯. ব্যাংক একাউন্ট, চেক বই, এসব টাকা ওয়ালাদের বিষয়, এ সব জায়গায় আপনি ছেড়া কাপড় পড়া গরীব মানুষদের টেনে আনলেন কেন?

১০. গরীব মানুষের টাকার গড়ে ওঠেছে আপনার জীবনের ভিৎ, সেই আপনার সই এখন দেশের কারেন্সীতে – এটা মেনে নেবো কেন?

১১. জামালপুরের এক হত দরিদ্র পরিবারের ছেলে আপনি, খালি গা-খালি পা, পরতেন লুঙ্গি- এখন এত ধোপদুরস্ত পোষাক পরেন, মানবো কেন?

১২. ওই খালি পা-খালি গা, ওরাও মানুষ! ১০টাকাও টাকা! ওই ১০টাকা ওয়ালাদের আপনি দিলেন ব্যাংক একাউন্ট! ব্যাংকের এই ইজ্জত হানির (!!) দায় আপনাকে নিতে হবে।

১৩. আপনি এক উজ্জ্বল ভবিষ্যত বাংলাদেশের স্বপ্ন দ্যাখেন বা দ্যাখান কেন?

মন্তব্য করি: খালি পা-খালি গা, লুঙ্গি পড়া মানুষের ‘পোলারা’ই যুদ্ধ করে, বুক চিতিয়ে নৈতিক দায় নেয়, লড়াই করে বেঁচে থাকে। আর কড় কড়ে টাকার গন্ধে যাদের জীবন ম ম করে, তারা দায় নেয় না- অন্যের উপর কেবল দায় চাপায়, পালিয়ে বেড়ায় দেশ, সমাজ ও জীবন থেকে।

মনজুরুল আহসান বুলবুল






মন্তব্য চালু নেই