মেইন ম্যেনু

ঢাকার পয়ঃ ও ড্রেনেজ সেবার উন্নয়নে ব্যাপক কাজ চলছে

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, রাজধানী ঢাকার পানি, পয়ঃ ও ড্রেনেজ সেবার উন্নয়নে বর্তমান সরকার ব্যাপক পরিবেশবান্ধব উন্নয়ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে জাতীয় সংসদে সরকারি দলের সদস্য আনোয়ারুল আবেদীন খানের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ঢাকা ওয়াসা ‘ঘুরে দাঁড়াও ঢাকা ওয়াসা’ কর্মসূচির মাধ্যমে ঢাকা শহরে টেকসই, পরিবেশবান্ধব ও গণমুখী পানি সরবরাহ ব্যবস্থা নিশ্চিত করছে। পাশাপাশি পানি, পয়ঃ এবং ড্রেনেজ সেবা আরও উন্নত করতে পানি সরবরাহ, পয়ঃনিষ্কাশন এবং ড্রেনেজ ব্যবস্থার সার্বিক উন্নয়নে তিনটি মাস্টার প্লান তৈরি করা হয়েছে।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ঢাকা শহরে ভূ-গর্ভস্থ পানির উপর নির্ভরতা কমিয়ে পরিবেশ-বান্ধব এবং টেকসই পানি ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে ভূ-উপরস্থ পানির উপর নির্ভরতা বাড়ানোর লক্ষ্যে পদ্মা নদী থেকে পানি এনে রাজধানীতে সরবরাহের জন্য ‘পদ্মা (যশলদিয়া) পানি শোধনাগার’ নামে চীনের আর্থিক সহায়তায় তিন হাজার ৫০৮ কোটি ৭৯ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। দৈনিক ৪৫ কোটি লিটার পানি সরবরাহ ক্ষমতা সম্পন্ন এ বৃহৎ পানি শোধনাগারটির নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে।

তিনি বলেন, এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় এক হাজার ৭৩৪ কোটি এক লাখ টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পের আওতায় ঢাকা শহরের সমস্ত পানির লাইন স্থাপন ও পুনর্বাসনের কাজ এগিয়ে চলছে। এ প্রকল্পের প্রায় ৬০ ভাগ কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, এএফডি, ফ্রান্স এবং ইউরোপিয়ান ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের আর্থিক সহায়তা পাঁচ হাজার ২৪৮ কোটি ছয় লাখ টাকা ব্যয়ে প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রকল্পটির কাজ ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে শেষ হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে রাজধানীর প্রায় ৪০ লাখ অধিবাসী উপকৃত হবে।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সাভারের তেঁতুলঝড়া-ভাকুর্তা এলাকায় ওয়েলফিল্ড নির্মাণ (১ম পর্ব) প্রকল্প, ঢাকা ওয়াটার সাপ্লাই অ্যান্ড স্যানিটেশন প্রজেক্ট, সায়েদাবাদ পানি শোধনাগার ফেজ-৩ প্রকল্পের কাজ এগিয়ে চলছে।

তিনি বলেন, সরকার ২০১৬ সালের মধ্যে রাজধানী ঢাকার সব বস্তিবাসীর বৈধ এবং নিরাপদ পানি সরবরাহের আওতায় আনার লক্ষ্যে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, এছাড়া সিলেট, বরিশাল ও রংপুর বিভাগীয় শহরে বিশুদ্ধ পানি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে ও বাস্তবায়িত হচ্ছে। দেশের ৩৭টি জেলা শহরে পানি সরবরাহ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম ওয়াসা চট্টগ্রাম মহানগরীতে শতভাগ নিরাপদ সুপেয় পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার কাজে নিয়োজিত। এছাড়া মোহরা এবং কালুরঘাট ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট পুনর্বাসন প্রকল্প, প্রজেক্ট ফর এডভান্সিং এনআরডব্লিউ রিডাকশন ইনিসেয়েটিভ অব চিটাগাং ওয়াসা, জরুরি পানি সরবরাহ প্রকল্প এবং এক্সপ্রেস পাওয়ার লাইন স্থাপন ও জেনারেটর ক্রয় প্রকল্পের কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই