মেইন ম্যেনু

ঢাকার সিনেমায় কে এই শ্রদ্ধা?

সম্প্রতি ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনার ছবি তৈরির সংখ্যা বাড়ছে। একই সঙ্গেই যৌথ প্রযোজনার ছবি নিয়ে কোথাও না কোথাও চাপা ক্ষোভও জমছিল ঢালিউডের অন্দরে। অনেক সময়ই অভিযোগে উঠে এসেছে যৌথ প্রযোজনার ছবিতে কলকাতাই বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে। সম্প্রতি ‘বাদশা’ নামে একটি ছবিকে কেন্দ্র করে আরও একবার তা সামনে এল। অন্য মোড়কে। উপলক্ষ ছবির নায়িকা শ্রদ্ধা দাস।

মহারাষ্ট্রের বাঙালি পরিবারে তার জন্ম। ছেলেবেলা কেটেছে সেখানেই। জন্ম ১৯৮৭ সালের ৪ মার্চ। মুম্বাই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় তিনি স্নাতক অর্জন করেন। ২০০৮ সালে ভারতের দক্ষিণে তেলুগু ছবিতে তার কেরিয়ার শুরু। পরে তিনি তেলুগু ছবি ছাড়াও বলিউড, মালায়লম, বাংলা ছবিতে অভিনয় করেন। তার অভিনীত প্রথম বাংলা ছবি দ্য রয়াল বেঙ্গল টাইগার।

বলিউডে তার প্রথম ছবি লাহৌর। এই ফিল্মে তার ভূমিকা ছিল এক পাকিস্তানি মনোবিদের। এই অভিনয়টি করে তিনি নাম করেছিলেন। একটি বছরে আর্য, মন্ত্র এবং চন্দ্রমুখী এই তিনটি ফিল্ম পর পর করার জন্য তার নামই হয়ে গিয়েছিল ‘সিক্যুয়েল ক্যুইন’। বলিউড ছবি ‘জিদ’-এর আগে সহকর্মীকে আহত করে শিরোনামে এসেছিলেন তিনি। ২০১৬ সালে তার হিন্দি, তেলুগু, বাংলা মিলিয়ে তাঁর ঝুলিতে রয়েছে ৪টি ছবি। এই প্রথম ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনার ছবিতে তিনি কাজ করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই