মেইন ম্যেনু

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে ৭০ কিলোমিটার যানজট

ঢাকা টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু মহাসড়কের চন্দ্রা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকার প্রায় ৭০ কিলোমিটার এলাকায় যানজট অপরিবর্তিত রয়েছে। শনিবার ভোর থেকে মহাসড়কের দুই পাশের রাস্তায় ধীরগতিতে গাড়ি চলাচল করলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ যানজটের সৃষ্টি হয়।

ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে বৃদ্ধি পেয়েছে যাত্রীবাহী বাস ও পশুবাহী ট্রাক। এছাড়াও দৈনন্দিনের পণ্যবাহী ট্রাকের জন্য দুই লেনের এই মহাসড়কটিতে যানবাহন চলাচলে ধীরগতি অপরিবর্তিত রয়েছে বলে জানিয়েছেন দায়িত্বরত পুলিশ বিভাগ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত বুধবার দিবাগত রাত থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ও বঙ্গবন্ধু সেতু জাতীয় মহাসড়কে ভয়াবহ যানজটের সৃষ্ট হয়। শনিবার ভোর থেকে মহাসড়কের টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব পাড় থেকে মির্জাপুর ও গাজীপুর জেলার চন্দ্রা পর্যন্ত প্রায় ৭০ কি.মি. এলাকার দুইপাশে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট।

এই যানজটের কবলে পড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঈদে বাড়ি ফেরা যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। এছাড়া পণ্যবাহী ট্রাক আটকা পরে কাঁচামাল পচে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। মহাসড়কের এলেঙ্গা, রাবনা বাইপাস, ঘারিন্দা, তারুটিয়া, নাটিয়াপাড়া, জামুর্কি, পাকুল্যা, শুভুল্লা, ইচাইল, গোড়াইল নয়াপাড়া, মির্জাপুর বাইপাস, বাওয়ার কুমারজানি, দেওহাটা, ধেরুয়া, সোহাগপাড়া, গোড়াই, ক্যাডেট কলেজ ও বোর্ড এলাকায় দেখা দিচ্ছে এই যানজটের ভয়াবহ চিত্র।

এছাড়া এ মহাসড়কের অধিকাংশ এলাকায় যানবাহন চলছে থেমে থেমে। তবে আজ থেকে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বৃদ্ধি পেয়েছে বলেও জানান তারা।

এ ব্যাপারে গোড়াই হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খলিলুর রহমান জানান, উত্তরাঞ্চলের ২২টি জেলার যানবাহন ছাড়াও টাঙ্গাইল, জামালপুর, শেরপুর জেলার পশুবাহী ট্রাক ও যানবাহন এখন ঢাকা-টাঙ্গাইলের দুই লেন বিশিষ্ট মহাসড়ক এবং বঙ্গবন্ধু সেতু জাতীয় মহাসড়ক দিয়ে যাতায়াত করছে।

এছাড়াও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে চার লেনের সম্প্রসারণ, কয়েকটি ফ্লাইওভারের কাজ, দুর্ঘটনা এবং গাড়ি বিকল হয়ে পড়ায় মহাসড়কের মাঝে মাঝে এই যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এর পাশাপাশি যানবাহনের ওভার ট্র্যাকিং যানজটের একটি প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

যানজট নিরসন ও যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে গোড়াই ও এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের পাশাপাশি ট্রাফিক পুলিশ, জেলা ও থানা পুলিশ, র্যাব ,আনসারসহ বিভিন্ন সংস্থার সদস্যরা কাজ করে যাচ্ছেন।






মন্তব্য চালু নেই