মেইন ম্যেনু

ঢাবির রোকেয়া হলে রাত হলেই চলে ছাত্রীদের ‘যৌনলীলা’

ঢাবি রোকেয়া হলে এক ছাত্রীর গোপন কর্মকাণ্ড নিয়ে সম্প্রতি এক ছাত্রী অভিযোগ করেন। তার ভাষ্যমতে, অনেক স্বপ্ন নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হই। হলে সিট পেতে এমনিতেই বেশ বেগ পেতে হয়।

অনেক কষ্টে এক সিনিয়র আপুর রুমে একটি সিট পাই। তবে এই রুমে এসে আমি যে এমন হয়রানির কবলে পড়বো, তা কে জানে?

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ছাত্রী বলেন, ‘হলের এক সিনিয়র আপু‘র [মাসুমা-ছদ্মনাম] সঙ্গে থাকতাম। কিছুদিন পর থেকে মাসুমা আপু প্রতি রাতেই আমাকে আদর করতো।

আমার স্তনের ওপর হাত বুলাতো। আমি প্রথমে বিষয়টিকে পাত্তা দেইনি। কিন্তু একদিন জোর করে তিনি আমাকে রুমের মধ্যে লাউড স্পিকারে গান ছেড়ে আমাকে সেই কাজে বাধ্য করেন।

তখন আমার আর কিছুই করার ছিল না। এরপরও মাঝে মাঝে আমাকে ঐ সিনিয়র রুমমেটকে সময় দিতে হতো। তিনি আমাকে যেহেতু তার রুমে থাকতে দিচ্ছে তাই আর কিছুই বলার ছিলো না।






মন্তব্য চালু নেই