মেইন ম্যেনু

ঢ্যাঁড়সে দূর ১০ গুরুত্বপূর্ণ শারীরিক সমস্যা

শীতের সবজি হলেও বর্তমান বাজারে প্রায় সারবছরই ঢ্যাঁড়স পাওয়া যায়। ভাজি ভর্তা বা ঝোলের তরকারিতে ঢ্যাঁড়স বেশ উপাদেয় খাবার। কারো কাছে এই সবজিটি খুবই পছন্দের। এতে রয়েছে অসাধারণ সব স্বাস্থ্যউপকারী গুণ। প্রতি ১০০ গ্রাম ঢ্যাঁড়সে পাবেন শক্তি ৩৩ কিলোক্যালরি, কার্বোহাইড্রেটস ৭.০৩ গ্রাম, প্রোটিন ২ গ্রাম, ফ্যাট ০.১ গ্রাম, খাদ্যআঁশ ৩.২ গ্রাম, ফোলেট ৮৮ মাইক্রোগ্রাম, নিয়াসিন ১ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি ২১.১ মিলিগ্রাম, ভিটামিন এ ৩৭৫ আইইউ, ভিটামিন ই ০.৩৬ মিলিগ্রাম, ভিটামিন কে ৫৩ মাইক্রোগ্রাম, সোডিয়াম ৮ মিলিগ্রাম, পটাসিয়াম ৩০৩ মিলিগ্রাম, ক্যালসিয়াম ৮১ মিলিগ্রাম, ম্যাগনেসিয়াম ৫৭ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ৬৩ মিলিগ্রাম, জিংক ০.৬০ মিলিগ্রাম, ক্যারটিন-বি ২২৫ মাইক্রোগ্রাম, লুটেইন ৫১৬ মাইক্রোগ্রাম। এতোসব উপকারী উপাদান সমৃদ্ধ সুলভ এই সবজি নিয়মিত শোভা পেতে পারে আপনার পাতের এক কোণে। কারণ নিয়মিত ঢ্যাঁড়স খেলে দূর হবে ১০ গুরুত্বপূর্ণ শারীরিক সমস্যা। আসুন তবে দেখে নেয়া যাক।

– ঢ্যাঁড়স দেহে লোহিত রক্ত কণিকা উৎপাদনে সহায়তা করে। এতে করে অ্যানিমিয়া অর্থাৎ রক্তস্বল্পতা দূর করে। অ্যানিমিয়া প্রতিরোধে নিয়মিত ঢ্যাঁড়স খাওয়া উচিৎ।

– ঢ্যাঁড়সের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট কোষের মিউটেশন প্রতিরোধ করে এবং ক্ষতিকর ফ্রি র‌্যাডিকেল দূর করে। এতে করে দেহে ক্যানসারের কোষ জন্মাতে পারে না। নিয়মিত ঢ্যাঁড়স খাওয়ার অভ্যাস ক্যানসার থেকে রক্ষা করে।

– ঢ্যাঁড়সের মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফোলায়েট যা হাড়ের গঠন মজবুত করে এবং হাড়ের ক্ষয় প্রতিরোধে সহায়তা করে।

– ঢ্যাঁড়সের ভিটামিন সি ও এ এ্যাজমার প্রকোপ কমায় এবং অ্যাজমা সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে।

– ঢ্যাঁড়সে রয়েছে স্যলুবল ফাইবার যা দেহের খারাপ কোলেস্টরল কমাতে বিশেষভাবে কার্যকরী। এতে করে কার্ডিওভ্যস্কুলার সমস্যা ও হৃদপিণ্ডের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

– ঢ্যাঁড়সের ফাইবার কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করতে বিশেষভাবে কার্যকরী। তাই এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে খাদ্যতালিকায় রাখুন ঢ্যাঁড়স।

– ঢ্যাঁড়সে ইনসুলিনের মতো উপাদান রয়েছে যা রক্তের সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। এতে করে ডায়বেটিসের সমস্যা দূরে থাকে।

– ঢ্যাঁড়সের ভিটামিন এ এবং সি দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, এতে করে নানা ধরণের ছোটোখাটো ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া জনিত রোগ দূর করা সম্ভব হয়।

– গর্ভধারণের নানা সমস্যা ও গর্ভকালীন সময়ে ফেটুসের নিউরাল টিউব ডিফেক্ট দূর করতে ঢ্যাঁড়স কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

– ঢ্যাঁড়সে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, লুটেইন ও বেটা ক্যারোটিন যা আমাদের দৃষ্টিশক্তি উন্নত করে এবং দৃষ্টিশক্তি সংক্রান্ত সমস্যা থেকে রক্ষা করে।






মন্তব্য চালু নেই