মেইন ম্যেনু

তাপস হত্যা : ২৯ ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে চার্জশিট

সাফাত জামিল শুভ, চবি প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বহুল আলোচিত তাপস হত্যা মামলায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আশরাফুজ্জামান আশা’কে মূল খুনী উল্লেখ করে ২৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দিয়েছে পুলিশ।মামলার দায়িত্ব নেয়ার প্রায় সাত মাস পর ২রা মে, চট্টগ্রাম মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে হত্যাকান্ডের অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

পিবিআই এর তৈরি করা অভিযোগপত্রে ২৯ জনের সবাই ছাত্রলীগের কর্মী বলে জানা গেছে। সোমবার চট্টগ্রাম জেলা আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখায় ৬ পৃষ্ঠার অভিযোগ পত্রটি জমা দেয়া হয়েছে। অভিযোগপত্রে মূল অভিযুক্ত আশরাফুজ্জামান আশাসহ ১৪ জন পলাতক রয়েছেন। বাকিরা জামিনে আছেন।

ঘটনার সময় ভারতে অবস্থান করায় এজাহারভুক্ত আসামি রূপম বিশ্বাসকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন করা হয়।এছাড়া বাকী ২৮ আসামির মধ্যে তিনজনের বিরুদ্ধে হত্যাকাণ্ডে সহযোগিতা এবং ২৫ জনের বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে জড়ো হয়ে ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও আতঙ্ক ছড়ানোর অভিযোগ আনা হয়। অভিযুক্তদের মধ্যে আশরাফুজ্জামান আশা’সহ ১৫ আসামি পলাতক এবং বাকি ১৪ আসামি জামিনে আছেন বলে জানা যায়।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে ফুল দেয়াকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়ায় ছাত্রলীগ নিয়ন্ত্রিত শাটল ট্রেনে’র বগিভিত্তিক সংগঠন ভিএক্স (ভার্সিটি এক্সপ্রেস) ও সিএফসি (চ্যুজ ফ্রেন্ডজ উইথ কেয়ার)। সেসময় শাহজালাল হলে অবস্থানরত ভিএক্স ও শাহ আমানত হলের সিএফসি কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলি হয়।সংঘর্ষের এক পর্যায়ে বুলেটের আঘাতে প্রকাশ্য দিবালোকে নির্মমভাবে নিহত হয় সংস্কৃত বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী তাপস সরকার।

মামলাটির তৎকালীন তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন হাটহাজারী থানার উপ-পরিদর্শক হাবিবুর রহমান। পরবর্তীতে গত বছরের ৫ আগস্ট মামলাটি পুলিশের বিশেষ শাখা পিবিআই’তে হস্তান্তর করা হয়।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই