মেইন ম্যেনু

তাসকিনের উজ্জ্বল ভবিষ্যতই দেখছি: ওয়াকার

১৭ জানুয়ারি, ২০১৪। একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রাজার মতোই অভিষেক হয়েছিল তাসকিন আহমেদের। সেদিন বাঘের মতোই থাবা দিয়েছিলেন ভারতীয় শিবিরে। তার ভেতরের আগুনের উত্তাপটা বেশ ভালোভাবেই টের পেয়েছিলেন রায়না-শিখররা। সেই উত্তাপেই বাংলাদেশের এই তরুণ তুর্কি উড়িয়ে দিয়েছিলেন টিম ইন্ডিয়ার শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ।

অভিষেকেই তাসকিন তুলে নিয়েছিলেন পাঁচ উইকেট। দেশের ক্রিকেটে তাসকিন যে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতেই এসেছেন, জানান দিয়েছিলেন একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাত্রা শুরুর দিনই। দুর্ভাগ্য তার। ইনজুরি নামক ঘাতক তার ওপর হানা দিয়ে বসে। এর জন্য লম্বা একটা সময় থাকতে হয়েছে দলের বাইরে। গত বছর উড়ন্ত বাংলাদেশের বেশ কিছু সাফল্যে অংশ নিতে পারেনি। ছিলেন দর্শক হয়ে।

চোটমুক্ত হয়ে শঙ্কামুক্ত ফর্ম নিয়েই প্রত্যাবর্তন হয় তাসকিনের। চলতি বছরের জানুয়ারিতে দলে ফিরেই আলো ছড়াতে থাকেন। মজার বিষয়, এ বছর যে কয়টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন তার সবকটিতেই উইকেট শিকার করেছেন। ঘরের মাঠে চলমান টি-২০ ফরম্যাটের এশিয়া কাপেও দারুণ নৈপুণ্য দেখাচ্ছেন। প্রতিটা ম্যাচেই ওপেনিং বোলারের ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন তাসকিন। রান মোটে দিতেই চান না! এতে বলা বাহুল্য যে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানরা বেশ চাপে পড়ে যান।

বুধবার পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম স্পেলে তাসকিনের বোলিং ফিগার ৩-১-২-১। অর্থাৎ তিন ওভারে একটি মেডেনসহ মাত্র ২ রান দিয়ে তুলে নেন ১ উইকেট। যা মধ্যে ছিল ১৪টি ডটবল। প্রথম স্পেলের বোলিং দেখে অনেকে হয়তো তাসকিনকে ‘হারকিপটে’ বোলারই আখ্যা দিতে চাইবেন। দ্বিতীয় স্পেলে নিজের করা চতুর্থ ওভারে ১২ রান না দিলে কম খরুচে রোলারের রেকর্ডও করে ফেলতে পারতেন। বাংলাদেশ ফাইনালে উঠে গেছে বলে তাসকিনের আক্ষেপে বোধ হয় এসব নেই!

এশিয়া কাপের গুরুত্বপূর্ণ এক ম্যাচে এমন আগুনে বোলিং করলেন তাসকিন, অথচ প্রশংসা পাবেন না তা কী করে হয়? হ্যাঁ, বাংলাদেশের তারকা এই পেসারকে প্রশংসা বানে ভাসাতে ভুল করেননি প্রতিপক্ষ পাকিস্তানের কোচ ওয়াকার ইউনুস। তাসকিনের উজ্জ্বল ভবিষ্যতই দেখছেন সাবেক তারকা বোলার, ‘আজ (বুধবার) বাংলাদেশ দুর্দান্ত বোলিং করেছে। তাদের যে অসাধারণ কিছু বোলার আছে, তাতে যেকোনো শক্তিশালী দলের ব্যাটিংলাইনকেও দুমড়েমুচড়ে দিতে পারে। নির্দিষ্ট করে বলতে গেলে তাসকিনের নামই আসছে। বয়সে তরুণ, কিন্তু দারুণ বোলিং করে যাচ্ছে সে। সে তো স্মার্ট বোলারদেরই একজন। আমি তার উজ্জ্বল ভবিষ্যতই দেখছি।’






মন্তব্য চালু নেই