মেইন ম্যেনু

তাসকিনের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ওয়ালশ

তার চোখে সাকিবের করা ৪৭তম ওভারটিই ছিল ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। তাই বলে তাসকিন আহমেদের শেষ দুই ওভারের বোলিংকেও খাটো করে দেখতে নারাজ বাংলাদেশ বোলিং কোচ। ওয়ালশের ধারণা, তাসকিন দুর্দান্ত বোলিং করেছে।

তাসকিনের বোলিংয়ের মূল্যায়ন করতে গিয়ে ওয়ালশ বলেন, ‘তার বোলিং অ্যাকশন প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছিল। মাত্র বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। মাঝের সময়টা কেটেছে অনেক উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায়। নিজের ক্যারিয়ার ও ভবিষ্যতের কথা ভেবে অবশ্যই বাড়তি চাপে ছিল তাসকিন। সেই চাপ মাথায় নিয়ে ভালো বোলিং করা কঠিন। আমার মনে হয় তাসকিন শুরু থেকে তেড়েফুড়ে বেশি কিছু করতে চাচ্ছিল।’

ওয়ালশ আরো যোগ করেন, ‘প্রথম দিকে তেমন কিছু করতে না পারলেও ঠিক যখন আমাদের দরকার ছিল তখনই সে নিজেকে ফিরে পেয়েছে তাসকিন। অনেক চড়াই-উৎরাই পাড়ি দিয়ে এবং বোলিং অ্যাকশনে নিষেধাজ্ঞা মুক্ত হয়ে নতুিন করে ফেরার দিনে দুর্দান্ত বোলিং করেছে তাসকিন। এটাকে অসাধারণ কামব্যাকই বলতে হবে। তাকে কৃতিত্ব দিতেই হবে। নানামুখী চাপ অতিক্রম করে দীর্ঘ দিন জাতীয় দলের হয়ে মাঠে নামার কারণে আমার মনে হয় সামগ্রিক বিবেচনায় কালকের ম্যাচটি তার খারাপ যেতেই পারতো। তাহলেও হয়তো বলার কিছু থাকতো না। তাহলে আমরা ম্যাচ হারতাম। কিন্তু তাসকিন সব প্রতিকূলতাকে অতিক্রম করে ভালো বল করেছে। আমরাও জিতেছি।’






মন্তব্য চালু নেই