মেইন ম্যেনু

তিস্তার পানি বিপদসীমার ওপরে, ২৫ গ্রাম প্লাবিত

ভারি বর্ষণ ও উজানের ঢলে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পেয়ে জেলার নদীতীরবর্তী ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের ২৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এসব গ্রামের প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ দু’দিন থেকে পরিবার-পরিজন নিয়ে পানিবন্দী হয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।

ইউপি চেয়ারম্যান একরামুল হক চৌধুরী জানান, বন্যাকবলিত এলাকায় দেখা দিয়েছে খাদ্য ও নিরাপদ পানির অভাব।

তিস্তা নদীর পানি মঙ্গলবার সকাল ৬টায় বিপদসীমার ২৫ ও বিকেল ৩টায় আট সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পূর্ব ছাতনাই ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ খান জানান, তিস্তার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলার নিম্নাঞ্চলের ২৫টি গ্রাম। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়েছে বন্যাকবলিত ছোটখাতা, পশ্চিম বাইশপুকুর, পূর্ব বাইশপুকুর, কিসামত ছাতনাই, পূর্ব ছাতনাই ঝাড়শিঙ্গের চর, বাঘেরচর, টাবুরচর, ভেণ্ডাবাড়ী, ছাতুনামা, হলদিবাড়ী, একতারচর, ভাসানীর চর, কিসামতের চর ও ছাতুনামা চর গ্রাম।

এ ব্যাপারে ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ভারি বর্ষণ ও উজানের ঢলের কারণে তিস্তার পানি বিপদসীমার আট সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানির চাপ নিয়ন্ত্রণে তিস্তা ব্যারাজের সবকটি গেট খুলে দেওয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই