মেইন ম্যেনু

তীব্র শীতেও মাঠ গরম রাখছেন প্রার্থীরা

সীমান্ত এলাকা জকিগঞ্জ। অন্যান্য অঞ্চলের চেয়ে এখানে আগেভাগে শীত একটু বেশিই পড়ে। কিন্তু এবার পৌর নির্বাচনী আমেজের কাছে পরাজিত হচ্ছে শীত। আসন্ন পৌর নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীদের প্রচারণায় শীতের আমেজ এখন নির্বাচনী আমেজে রূপান্তরিত হয়েছে। তীব্র শীতকে উপেক্ষা করে ভোটারদের দুয়ারে গিয়ে দাঁড়াচ্ছেন প্রার্থীরা।

ওপারে ভারত, মধ্যখানে কুশিয়ারা নদী, এপারে জকিগঞ্জ। সাড়ে ৬ বর্গ কিলোমিটারের জকিগঞ্জে ৩৫ হাজার মানুষের বাস। এবারের পৌর নির্বাচনে জকিগঞ্জ থেকে লড়ছেন ৬ মেয়র প্রার্থী, ৩১ কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত আসনে ৮ নারী কাউন্সিলর। পৌরসভায় মোট ১০ হাজার ৪০৬ জন ভোটারের মধ্যে নারী ভোটারের সংখ্যা সামান্য বেশি। নারী ভোটার রয়েছেন ৫ হাজার ২৭১ জন এবং পুরুষ ভোটার ৫ হাজার ১৩৫ জন।

এবারের পৌরসভা নির্বাচনে জকিগঞ্জে মেয়র পদে লড়ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার খলিল উদ্দিন (নৌকা), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রাক্তন যুগ্ম আহবায়ক ফারুক আহমদ (জগ), বিএনপি মনোনিত প্রার্থী পৌর বিএনপির প্রাক্তন সভাপতি অধ্যাপক বদরুল হক বাদল (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টি মনোনিত প্রার্থী বর্তমান মেয়র আব্দুল মালেক ফারুক (লাঙ্গল), স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী হিফজুর রহমান (মোবাইল ফোন) ও খেলাফত মজলিস মনোনিত প্রার্থী জাফরুল ইসলাম (দেয়াল ঘড়ি)।

সীমান্তঘেঁষা জকিগঞ্জে জেঁকে বসেছে শীত। কিন্তু নির্বাচনী উত্তাপের কাছে ম্লান হয়ে আছে শীতের আমেজ। বরঞ্চ নির্বাচনী আমেজই এ পৌরসভায় পুরোদমে বিরাজ করছে। কাকডাকা ভোর থেকে শুরু হয় প্রার্থীদের প্রচারণা। বিশেষ করে মেয়র প্রার্থীরা গভীর রাত অবধি পুরো পৌরসভা চষে বেড়াচ্ছেন শীত উপেক্ষা করেই। ভোটার, এমনকি ভোটার নয়, এমন পৌরবাসীর বাসা-বাড়ি, দোকানপাটে গিয়ে হাজির হচ্ছেন মেয়র প্রার্থীরা। দিচ্ছেন প্রতিশ্রুতি, চাইছেন দোয়া, ভালোবাসা আর ভোট।

এদিকে পুরো জকিগঞ্জ পৌরসভাজুড়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের প্রচারণায় চলছে মাইকিং। ‘সামনে আসছে শুভ দিন, অমুক মার্কায় ভোট দিন’ ‘জয় জয় হবে জয়, অমুক মার্কার হবে জয়’ এরকম বিচিত্র স্লোগানে পাড়া-মহল্লা চষে বেড়াচ্ছে প্রার্থীদের মাইকিং বহর। এ ছাড়াও প্রার্থীদের পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো জকিগঞ্জ।






মন্তব্য চালু নেই