মেইন ম্যেনু

তীব্র শীত: চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা ৬.১ ডিগ্রী সেলসিয়াস

চুয়াডাঙ্গায় তীব্র শীত জেকে বসেছে। রবিবার সকাল ৯টায় চুয়াডাঙ্গায় ছিল দেশের সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ৬ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে গত শুক্রবারও চুয়াডাঙ্গায় দেশের সর্বনিম্ম তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

কয়েকদিন আগে চুয়াডাঙ্গাসহ প্রায় সারাদেশে বৃষ্টিপাতের পর থেকেই চুয়াডাঙ্গায় তীব্র শীত অনুভূত হতে থাকে। শীতের কারণে রাত ৮টার আগেই রাস্তাঘাট ফাঁকা হয়ে পড়ছে। শীতের দূর্ভোগ থেকে বাঁচার জন্য মানুষ ঘরে ফিরছে। একই অবস্থা দেখা যাচ্ছে সকাল ও বিকালেও।

বেশিরভাগ দিনই সকাল ৯টার আগে সূর্যের মুখ দেখা যাচ্ছে না। পাশাপাশি থাকছে উত্তুরে হাওয়া। এতে শীত আরো বেশি অনুভূত হচ্ছে। শীতে সবচেয়ে বেশি দূর্ভোগে পড়েছেন নি¤œ আয়ের মানুষেরা। শীত উপেক্ষা করেই তাদের যেতে হচ্ছে মাঠে এবং হাট বাজারে দিনমজুরের কাজ করতে হচ্ছে। এক সপ্তাহের ঘন কুয়াশা, ঠান্ডা আর তিনদিন আগে হয়ে যাওয়া গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে পানের বরজ, ধানের বীজতলাসহ মাঠের ফসলের ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মাসুদ রানা জানান, গত ৩-৪ দিন ধরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। এদিকে শৈত্য প্রবাহের কারণে নিউমোনিয়া, রোটাভাইরাস, ডায়রিয়াসহ শীতজনিত রোগ বেড়ে গেছে। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সগুলোতে রোগিদের উপচে পড়া ভিড় রয়েছে।

সদর হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ১৩ শয্যার বিপরীতে ৫২ রোগি চিকিৎসাধীন রয়েছে। অতিরিক্ত রোগি সামলাতে ডাক্তার ও নার্সদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অফিসের ইনচার্জ জাহিদুল ইসলাম জানান, বেশ কয়েকদিন ধরে চুয়াডাঙ্গায় উত্তুরে বাতাস বইছে। এতে মানুষ শীত অনুভব করছেন আরো বেশি।






মন্তব্য চালু নেই