মেইন ম্যেনু

তুচ্ছ ঘটনায় ঝিনাইদহে স্কুলছাত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে ঝিনাইদহ শহরের পৌর এলাকার নিজমথুরাপুর গ্রামে বৈশাখী খাতুন (১৫) নামে এক স্কুলছাত্রীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শুক্রবার দুপুরে বৈশাখীর মৃতদেহ বাড়িতে আনা হয়। সে ওই গ্রামের আব্দুস সামাদের মেয়ে ও স্থানীয় আনোয়ার জাহিদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।

বৈশাখীর বড় বোন সাবিনা জানান, মোবাইল ফোন নম্বর নেওয়াকে কেন্দ্র করে তার বাবা ও চাচা আলমগীর হোসেনের মধ্যে ঝগড়া হয়।

এর জের ধরে গত বুধবার সন্ধ্যায় চাচা আলমগীর, চাচী নাসরিন, চাচাতো মামা উজ্জল হোসেন ও নানী মিলে বৈশাখীকে বেদম মারধর করে। এতে বৈশাখী গুরুতর আহত হয়।

এ সময় বৈশাখীকে রক্ষা করতে গিয়ে তিনি (সাবিনা) ও তার বাবা আব্দুস সামাদ মারধরে আহত হন। পরে তাদের সবাইকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।

বৈশাখী অবস্থার অবনতি হলে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান হাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, এ ঘটনায় বৈশাখীর বোন সাবিনা বাদী হয়ে ৪ জনকে অভিযুক্ত করে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

এদিকে, এ ঘটনার পর থেকে বৈশাখীর চাচা আলমগীর হোসেন ও তার পরিবার পলাতক রয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই