মেইন ম্যেনু

তুরস্কে নতুন সেনাপ্রধান নিয়োগ, ৫০ সেনার আত্মসমর্পণ

তুরস্কে সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর শনিবার দেশটিতে ভারপ্রাপ্ত নতুন সেনাপ্রধান নিয়োগ করা হয়েছে। এছাড়া অভ্যুত্থান প্রচেষ্টায় লিপ্ত প্রায় ৫০ সেনা আত্মসমর্পণ করেছে বলেও খবর পাওয়া গেছে।

তুরস্কে সেনা অভ্যুত্থান ব্যর্থ হওয়ার পর দেশটিকে নতুন সেনাপ্রধান নিয়োগ দেয়া হয়েছে। শনিবার প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়েলদ্রিম জানান, জেনারেল উমিত দুনদারকে ভারপ্রাপ্ত সেনাপ্রধানের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি হুলুসি আকারের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। এর আগে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান এক বিবৃতিতে বলেছিলেন, দেশটির সেনাপ্রধান হুলুসি আকার কোথায় আছেন, কী অবস্থায় আছেন, তিনি তা জানেন না। ওই অভ্যুত্থানে হুলুকির কোনো ভূমিকা ছিল কিনা সে বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি।

শনিবার সকালে ইস্তাম্বুলের বোসফরাস সেতুর ওপর আত্মসমর্পণ করেছে অভ্যুত্থানে নেতৃত্বদানকারী ৫০ সেনা। মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনএন ফুটেজে দেখা যায়, তারা নিজেদের ট্যাঙ্ক ছেড়ে দু হাত মাথার ওপর তুলে সেতুটি পেরিয়ে আসছে।

এদিকে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু জানিয়েছে, শুক্রবারের ওই সেনা বিদ্রোহ ব্যর্থ হওয়ার পর গোটা দেশে অভিযান চালিয়ে আরো ৭৫৪ সেনা সদস্যকে আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার গভীর রাতে শুরু হওয়া ওই সেনা বিদ্রোহে কমপক্ষে ৬০ জন নিহত হয়েছে। এদের বেশিরভাগই সাধারণ মানুষ। শনিবার সকালে ইস্তাম্বুলের বিমানবন্দরে উপস্থিত হন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। তিনি ওই অভ্যুত্থানকে ‘সন্ত্রাসী তৎপরতা’ হিসেবে উল্লেখ করে তার সমর্থকদের বাইরে বেরিয়ে আসার আহ্বান জানান। তার ডাকে সাড়া দিয়ে ইস্তাম্বুল বিমানবন্দরের কাছে জড়ো হয় এক দল মানুষ। তাদের এরদোয়ানের পক্ষে শ্লোগান দিতে দেখা যায়।






মন্তব্য চালু নেই