মেইন ম্যেনু

তুরস্কে বিয়েতে হামলাকারীর বয়স ১২-১৪

তুরস্কের গাজিয়ানতেপ শহর বিয়েবাড়িতে আত্মহত্যা হামলাকারী ১২ থেকে ১৪ বছর বয়সী এক কিশোর বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। হামলায় ৫১ জন নিহত হয়েছেন।

এরদোয়ান বলেছেন, কথিত ইসলামিক স্টেট (আইএস) এ হামলার নেপথ্যে রয়েছে। হামলায় ৬৯ আহত হয়েছেন। এদের ১৭ জনের অবস্থা গুরুতর।

কুর্দি জনগোষ্ঠীর বিয়ের অনুষ্ঠানে রাস্তায় আনন্দফূর্তি করার সময় এ হামলা চালানো হয়।

বিবিসি জানিয়েছে, হামলার ধরন দেখে মনে হচ্ছে সন্ত্রাসীদের লক্ষ্য ছিল সর্বোচ্চ প্রাণহানি ঘটানো।

লিখিত বিবৃতিতে এরদোয়ান বলেন, আইএস, পিকেকে কুর্দিশ জঙ্গি এবং যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মুসলিম আলেম ফেতুল্লা গুলেনের অনুসারীদের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশ ও জাতির পক্ষ থেকে হামলাকারীদের উদ্দেশে একটিই বার্তা—আপনারা সফল হবেন না।’

স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ তগরুল বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, তাঁর দল কুর্দিপন্থী পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির (এইচডিপি) এক সদস্যে বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল।

তুরস্কে সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, নবদম্পতি হামলা থেকে বেঁচে গেলেও তাদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই